সুরা ফিল: হস্তীবাহিনীকে ধুলায় মিশিয়ে দেওয়ার বর্ণনা

ইসলাম ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

কোরআনের তাফসির

সুরা ফিল
মক্কায় অবতীর্ণ: আয়াত ৫

 

পরম করুণাময় ও অসীম দয়ালু আল্লাহর নামে শুরু 
১) আপনি কি দেখেননি আপনার পালনকর্তা হস্তীবাহিনীর সঙ্গে কীরূপ ব্যবহার করেছেন?
(২) তিনি কি তাদের চক্রান্ত নস্যাৎ করে দেননি?
(৩) তিনি তাদের উপর প্রেরণ করেছেন ঝাঁকে ঝাঁকে পাখি
(৪) যারা তাদের উপর পাথরের কংকর নিক্ষেপ করছিল
(৫) অতঃপর তিনি তাদেরকে ভক্ষিত তৃণসদৃশ করে দেন

এ সুরায় শাসনকর্তা আবরাহার হস্তীবাহিনীর ঘটনা সংক্ষেপে বর্ণিত হয়েছে। তারা কা’বা গৃহকে ভূমিসাৎ করার উদ্দেশে হস্তীবাহিনী নিয়ে মক্কায় অভিযান পরিচালনা করেছিল। আল্লাহ্ তায়ালা নগণ্য পক্ষীকূলের মাধ্যমে তাদের বাহিনীকে নিশ্চিহ্ন করে তাদের কুমতলবকে ধুলায় মিশিয়ে দেন।

এ ঘটনা ঘটেছিল মক্কা মোকাররমায় খাতামুল-আম্বিয়া (সা.)-এর জন্মের বছর। কতক রেওয়ায়েত দ্বারাও এটা সমর্থিত এবং এটাই প্রসিদ্ধ উক্তি (ইবনে কাসীর)। হাদিসবিদগণ এ ঘটনাকে রাসুলুল্লাহ্ (সা.)-এর এক প্রকার মোজেযা রূপে আখ্যায়িত করেছেন। কিন্তু মোজেযায় নুবওয়ত দাবির সঙ্গে নবীর সমর্থনের প্রকাশ করা হয়। নবুওয়ত দাবির আগে বরং নবীর জন্মেরও আগে আল্লাহ্ তায়ালা মাঝে মাঝে দুনিয়াতে এমন ঘটনা ও নিদর্শন প্রকাশ করেন, যা অলৌকিকতায় মোজেযার অনুরূপ হয়ে থাকে। এ ধরনের নিদর্শনাবলীকে হাদিসবিদগণের পরিভাষায় ‘আরহাসাত’ বলা হয়। রাহ্স’ এর অর্থ ভিত্তি ও ভূমিকা। এসব নিদর্শন নবীর নবুওয়ত প্রমাণের ভিত্তি ও ভূমিকা হয় বিধায় এগুলোকে ‘আরহাসাত’ বলা হয়ে থাকে। নবী করীম (সা.)-এর নবুওয়ত এমনকি জন্মেরও আগে এ ধরনের কয়েক প্রকার ‘আরহাসাত’ প্রকাশ পেয়েছে। হস্তীবাহিনীকে আসমানি আযাব দ্বারা প্রতিহত করাও এসবের অন্যতম।

আলাম তারা কাইফা ফাআলা রাব্বুকা বি-আসহাবিল ফিল
এখানে আলাম তারা ‘আপনি কি দেখেননি’ বলা হয়েছে; অথচ এটা রাসুলুল্লাহ (সা.)-এর জন্মের কিছুদিন আগেকার ঘটনা। কাজেই দেখার কোনও প্রশ্নই উঠে না। কিন্তু যে ঘটনা এরূপ নিশ্চিত যে, তা ব্যাপকভাবে প্রত্যক্ষ করা হয়, সে ঘটনার জ্ঞানকেও ‘দেখা’ বলে ব্যক্ত করা হয়; যেন এটা চাক্ষুষ ঘটনা। এক পর্যায়ে দেখাও প্রমাণিত আছে; যেমন পূর্বে উল্লেখ করা হয়েছে যে, হযরত আয়েশা ও আসমা (রা.) দু’জন হস্তীচালককে অন্ধ, বিকলাঙ্গ ও ভিক্ষুকরূপে দেখেছিলেন।
 
তাইরান আবাবিল
আবাবিল শব্দটি বহুবচন। অর্থ পাখির ঝাঁক। কোনও বিশেষ প্রাণীর নাম নয়, এই পাখি আকারে কবুতর অপেক্ষা সামান্য ছোট ছিল। কিন্তু এ জাতীয় পাখি আগে কখনও দেখা যায়নি। (কুরতুবি)

বিহিজা রাতিম্মিন সিজ্জিল
ভেজা মাটি আগুনে পুড়ে যে কংকর তৈরি হয়, সে কংকরকে সিজ্জিল বলা হয়ে থাকে। এতে ইঙ্গিত রয়েছে যে, এই কংকরেরও নিজস্ব কোনও শক্তি ছিল না। কিন্তু আল্লাহ্ তায়ালার কুদরতে সেসব কংকর বন্দুকের গুলি অপেক্ষা বেশি কাজ করেছিল।

ফাযাআলাহুম কাআসফিম মাকুল
আসফ এর অর্থ ভুষি। ভুষি নিজেই ছিন্ন-বিচ্ছিন্ন তৃণ। তদুপরি যদি কোনও জন্তু সেটিকে চর্বন করে, তবে এই তৃণও আর তৃণ থাকে না। কংকর নিক্ষিপ্ত হওয়ার ফলে আবরাহার সেনাবাহিনীর অবস্থা তদ্রপই হয়েছিল। হস্তীবাহিনীর এই অভূতপূর্ব ঘটনা সমগ্র আরবের অন্তরে কোরাইশদের মাহাত্ম্য আরও বাড়িয়ে দিল। এখন সবাই স্বীকার করতে লাগল যে, তারা বাস্তবিকই আল্লাহ্ ভক্ত। তাদের পক্ষ থেকে আল্লাহ্ তায়ালা স্বয়ং তাদের শত্রুকে ধ্বংস করে দিয়েছেন। (কুরতুবি)।

{{তাফসিরে মাআরেফুল কোরআন 
হযরত মাওলানা মুফতী মুহাম্মদ শাফী’ (রহ.)}}

সম্পাদনায়
মাওলানা সেলিম হোসাইন আজাদী
বিশিষ্ট মুফাস্সিরে কুরআন ও গণমাধ্যম ব্যক্তিত্ব
চেয়ারম্যান: বাংলাদেশ মুফাস্সির সোসাইটি


বাংলাদেশ সময়: ০২১৪ ঘণ্টা, মে ২১, ২০১৮
এইচএ/

তৃতীয় দফা সিদ্ধান্ত বদল যুক্তফ্রন্ট-ঐক্য প্রক্রিয়ার
সরকার অসচ্ছল মুক্তিযুদ্ধাদের ঘর নির্মাণ করে দিবে
রুশ-চীনা ২ কোম্পানির বিরুদ্ধে মার্কিন নিষেধাজ্ঞা
সুযোগসন্ধানী নেতাদের দিয়ে নির্বাচনে জেতা যাবে না
শ্রীলঙ্কার মুখোমুখি আত্মবিশ্বাসী বাংলাদেশ
পরিচয় মিলেছে বাগেরহাটে উদ্ধার বস্তাবন্দি তরুণীর 
মানব উন্নয়ন সূচকে বাংলাদেশের তিন ধাপ অগ্রগতি
কূটনৈতিক তৎপরতায় ২ কোরিয়ার লিয়াজোঁ অফিস
কাশ্মীরে যাত্রীবাহী বাস নদীতে পড়ে নিহত ১৩
‘বিএনপির আমলে দেশে কোনো উন্নয়ন হয়নি’