কাশ্মীরে বন্যা সতর্কতা, অমরনাথ যাত্রা স্থগিত

আন্তর্জাতিক ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

-

ভারতের জম্মু-কাশ্মীরে ভারী বৃষ্টিপাতে ভূমিধসের কারণে অমরনাথ যাত্রা স্থগিত করা হয়েছে।  অমরনাথ যাত্রাটি পাহালগাম রুট দিয়ে হওয়ার কথা ছিলো। খারাপ আবহাওয়ার কারণে বালতাল রুটেও অমরনাথ যাত্রা স্থগিত করা হয়েছে। 

জম্মু পুলিশ কর্তৃপক্ষের বরাত দিয়ে আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যম জানিয়েছে, পাহালগাম ও বালতাল রুটে ঝড়ো আবহাওয়া ও খারাপ রাস্তার কারণে অমরনাথ যাত্রা স্থগিত করা হয়েছে। 

শুক্রবার (২৯ জুন) দক্ষিণ কাশ্মীরের অনন্তনাগ জেলার ঝিলুম নদীর পানি বিপদসীমার ২১ ফুট উপর দিয়ে প্রবাহিত হয়। এ কারণে জম্মু-কাশ্মীরে বন্যা সতর্কতা জারি করা হয়েছে। পূর্ব সতর্কতা হিসেবে কাশ্মীরের স্কুলগুলোও বন্ধ থাকবে বলে জানিয়েছে কর্তৃপক্ষ।  

তৃতীয় পর্যায়ের তীর্থযাত্রীরা ভগতিনগর বেস ক্যাম্প থেকে তাদের যাত্রা শুরু করে। এরপর পাহালগামের তিকরি বেস ক্যাম্পে এসে তীর্থযাত্রা স্থগিত হয়। কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, খারাপ আবহাওয়ার কারণে ও পূর্ব সতর্কতা হিসেবে পাহালগামের অমরনাথ যাত্রা স্থগিত করা হয়েছে। তীর্থযাত্রীদের নিরাপদ স্থানেও সরিয়ে নিয়েছে কর্তৃপক্ষ।

জম্মু-কাশ্মীর ন্যাশনাল পানথারস পার্টির রাজ্য সভাপতি বালওয়ান্ট সিং মানকোতিয়া বলেন, প্রায় ৫শ’ থেকে ৭শ’ জন উপাসক তিকরি ক্যাম্পে তাদের যাত্রা স্থগিত করেছে। তাদের জন্য খাবারের আয়োজন করা হয়েছে। তাদের সমস্যা নিয়ে আমরা আলোচনা করছি। 

কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, আবহাওয়া পরিস্থিতির উন্নতি হলে তীর্থযাত্রীদের যাত্রা শুরু হবে। 

আবহাওয়া বিভাগের পরিচালক সোনাম লোটাস আশা প্রকাশ করে বলেন, দ্রুত আবহাওয়া পরিস্থিতি ভালো হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। 

শুক্রবার (৩০ জুন) কাশ্মীরের সংযোগ মহাসড়ক গ্যাংরোতে ২৬০ কিলোমিটার এলাকাজুড়ে ভূমিধস হয়। 

এবছর দুই লাখের বেশি তীর্থযাত্রী অমরনাথ যাত্রার জন্য নিবন্ধন করেছে। 

বাংলাদেশ সময়: ১৪২৯ ঘণ্টা, জুন ৩০, ২০১৮
এএইচ/আরআর

১৪ দলের পরিধি বাড়াতে আপত্তি শরিকদের
দাউদকান্দিতে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ মাদক ব্যবসায়ী নিহত
লালমনিরহাটে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় ধর্ষক গ্রেফতার
‘বুলেটের চেয়েও শক্তিশালী ব্যালট’
ছুরিকাঘাতে প্রাণ গেলো অলিম্পিক পদকজয়ী ফিগার স্কেটারের
গোবিন্দগঞ্জে মাধ্যমিকের বই জব্দের ঘটনায় আটক ১
৩ ভাইয়ের প্রচেষ্টায় ৪ ঘণ্টায় ১ ইলিশ!
এখন সংগ্রাম জাতি হিসেবে গৌরব অর্জনের
কক্সবাজার লিংক রোডে ইসলামী ব্যাংকের ৩৩৭তম শাখা
রবীন্দ্রকথন ‘বাংলার মাটি বাংলার জল’