‘মেট্রো’ একই অ্যাপে অটোরিকশা, মোটরসাইকেল, ট্যাক্সি

সাব্বির আহমেদ, সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

...

ঢাকা: সিএনজি চালিত অটোরিকশায় চড়তে গিয়ে বিড়ম্বনায় পড়েছিলেন খোন্দকার আবু জাফর রিমন। তখনই মাথায় আসে, অটোরিকশাকে অ্যাপের আওতায় নিয়ে আসার। ‘মেট্রো’ নামে তার অটোরিকশা অ্যাপটি এখন চলছে ঢাকাজুড়ে।
 

সিএনজি অটোরিকশা ছাড়াও অ্যাপটিতে একসঙ্গে মিলছে মোটরসাইকেল, ট্যাক্সি, রেন্ট-এ কার। সে হিসেবে এটি দেশের প্রথম কোনো অ্যাপ যেখানে সবচেয়ে বেশি অ্যাপ ভিত্তিক পরিবহন যুক্ত করা হয়েছে।
 
যাত্রা শুরুর প্রথম সপ্তাহ পার করছে মেট্রো অ্যাপ। সাড়া মিলছে সিএনজি অটোরিকশা অ্যাপে। তবে স্মার্টফোনে চালকরা অভ্যস্ত না হওয়ায় বেশ চ্যালেঞ্জের মুখে ‘মেট্রো’ অ্যাপ। এজন্য চালক ইউনিয়নগুলোর সঙ্গে বসছেন তারা।
 
তবে মাত্র ছয় মাসে এ অবস্থার পরিবর্তন ঘটাবেন–এমন প্রত্যয় ব্যক্ত করলেন মেট্রো অ্যাপ-এর চেয়ারম্যান খোন্দকার আবু জাফর রিমন।
 
বুধবার (১৫ মাচ) বাংলানিউজকে তিনি বললেন, মানুষ আর রাস্তার মোড়ে দাঁড়িয়ে অটোরিকশা ডাকাডাকি বা দরদাম করবে না। ঘরে বসেই অটোরিকশা ডাকবে। বাসার সামনে অটোরিকশা এলে তারপরে বের হবে। আর শুধু অটোরিকশাই নয়, একই অ্যাপে মোটরসাইকেল রাইড শেয়ারিং, ট্যাক্সি ও রেন্ট এ কারের সুবিধাও যুক্ত আছে।

অ্যাপটিকে নতুন, বৈচিত্র্যময় ও ব্যতিক্রম আখ্যা দিয়ে রিমন খন্দকার বলেন, ভাড়া বাড়িয়ে একের পর এক অ্যাপ এসেছে ঢাকায়। আমরা ভাড়া কমিয়ে যাত্রা শুরু করেছি। আর যারা ফ্রিল্যান্সার বাইকার বা অটোরিকশা চালক, তাদের সুবিধা বেশি দিচ্ছি। এ কারণে মেট্রো’র এক অ্যাপে সব সুবিধা পেয়ে মানুষ এটি ব্যবহার করতে উৎসাহিত হবে। আর অন্য সব অ্যাপের মতো এর সার্ভার ডাউন হওয়ার সমস্যা থাকবে না। মেট্রো অ্যাপ-এর সার্ভার অনেক শক্তিশালী।

অ্যাপ প্রতিষ্ঠানটি জানায়, এ অ্যাপের মাধ্যমে যাত্রীরা চলার পথে নিজের অবস্থান সামাজিক মাধ্যমগুলোতে শেয়ার করে জানিয়ে দিতে পারবেন। রয়েছে চালকের সঙ্গে চ্যাটিংয়ের সুবিধা। যাত্রী ও চালক উভয়ের জন্য ‘ইমারজেন্সি’ ও ‘এসওএস’ বাটন থাকছে অ্যাপে। বিপদের আশঙ্কায় সরাসরি ৯৯৯  নম্বরে ফোন করা যাবে এ অ্যাপের মাধ্যমে।

মেট্রো সিএনজি অটোরিকশা অ্যাপের চেয়ারম্যান রিমন খন্দকার আরও বলেন, ঢাকায় দুই শতাধিক অটোরিকশা চালক অ্যাপটি ব্যবহার শুরু করেছেন। এ সংখ্যা প্রতিদিনিই বাড়ছে। তবে অবস্থার আমূল পরিবর্তন বা পুরো ঢাকা শহরের সিএনজি অটোরিকশা অ্যাপে আসবে আগামী ছয় মাসের মধ্যে।
 
অ্যাপ নির্ভর সিএনজি অটোরিকশা ভাড়া প্রথম দুই কিলোমিটার ৪০ টাকা এবং পরবর্তী প্রতি কিলোমিটার ১২ টাকা করে। আর ওয়েটিং চার্জ প্রতি মিনিট দুই টাকা।

আর মোটরসাইকলে রাইড শেয়ারিংয়ের ভাড়া অন্যান্য রাইড অ্যাপের চেয়ে একটু কম। ট্যাক্সির ক্ষেত্রেও অন্যান্য অ্যাপ থেকে কম রেখেছেন তারা।

এর আগে ঢাকায় সিএনজি চালিত অটোরিকশার প্রথম অ্যাপ আনে ‘গতি’। কিন্তু ততটা বিস্তার লাভ করেনি অ্যাপটি। চালকদের প্রশিক্ষণ আর স্মার্টফোন বুঝিয়ে দিতেই চ্যালেঞ্জের মধ্য দিয়ে যাচ্ছে। এর মধ্যে নামলো ‘মেট্রো’ অ্যাপ। দেশের প্রথম মোটরসাইকেল রাইড শেয়ারিং অ্যাপ স্যাম তাদের অ্যাপে সিএনজি অটোরিকশা কিছুদিনের মধ্যে যুক্ত করবে। একই পথে রাইড শেয়ারিং ‘অ্যাপ মুভ’। তারাও অটোরিকশা চালক ও যাত্রীদের সংযোগ ঘটিয়ে দিতে মুভ অ্যাপে সিএনজি অটোরিকশা শুরু করতে যাচ্ছে।

তবে রাইড শেয়ারিং নীতিমালায় সিএনজি অটোরিকশাকে অ্যাপে রাখেনি সরকারের পরিবহন নিয়ন্ত্রক সংস্থা বিআরটিএ। শুরুতে যে খসড়া ছিলো তাতে সিএনজি অটোরিকশাকে অ্যাপ ভিত্তিক সেবার সুযোগ দেওয়া হয়েছিলো। মন্ত্রণালয়ে যাচাই বাছাই করতে গিয়ে এটি বাদ দেওয়া হয়। যুক্তি হিসেবে বলা হয়, মিটার পদ্ধতি এখানে আছে। তবে বাস্তবে মিটার অচল।

এ অবস্থায় সিএনজি অটোরিকশা অ্যাপে পেলে যাত্রী এবং চালক উভয়েরই সুবিধা হচ্ছে। এ বিবেচনায় মেট্রো ছাড়াও অ্যাপে সিএনজি অটোরিকশা যুক্ত করতে চলেছে ঢাকার প্রায় সব রাইড শেয়ারিং অ্যাপ।

সিএনজি চালিত অটোরিকশাকে কেন্দ্র করে নতুন শুরু হওয়া মেট্রো অ্যাপের সঙ্গে আরও যুক্ত আছেন ডিরেক্টর অফ অপারেশন্স এমডি, কে এম বাকি বিল্লাহ আর অ্যাপটির মূল প্রোগ্রামার নিউইয়র্ক প্রবাসী এ এইচ এম জাহিদ, ব্যবস্থাপনা পরিচালক সাইদুর রহমান।

বাংলাদেশ সময়: ১৫১৬ ঘণ্টা, মার্চ ১৫, ২০১৮
এসএ/এসআই

বিলুপ্তির পথে ‘ইকর-বাড়ি’
রাস্তায় ঘুমান অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক অধ্যাপক!
৬ বছর ধরে শিকলে বন্দি প্রলয়
বেনাপোলে মানসিক ভারসাম্যহীন কিশোরী উদ্ধার
স্কুলছাত্রীর ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধারের ঘটনায় প্রেমিক আটক
পাহাড়ে ফের দানা বেঁধেছে হিংসা, হানাহানি
চীনে মিলল ১১ সেন্টিমিটারের দানব মশা
পিকের বিকল্প আলোনসো!
৫ হাজার ৫০৩ পদে সুপারিশই সাড়ে ৭ হাজার!
বেগুনের ডগায় লাল টমেটো!

Alexa