সিম্ফনি আনলো ফুলভিশন ডিসপ্লের ফোরজি ‘আই ১১০’

নিউজ ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

সিম্ফনি ফোরজি ‘আই ১১০’

সিম্ফনি এবার বাজারে নিয়ে এসেছে আকর্ষণীয় ফিচার ফুলভিশন ডিসপ্লে এবং ফোরজি নেটওয়ার্ক সাপোর্টেড নতুন স্মার্টফোন ‘আই ১১০’। 

৮.৭ এমএম স্লিম এবং নন ট্রাডিশনাল ডিজাইনের কারণে ‘সিম্ফনি আই ১১০’ হ্যান্ডসেটটি হাতে দেবে চমৎকার গ্রিপিং। ১৮.৯ বডি রেশিও এবং ফুলভিশন ডিসপ্লের জন্য পাওয়া যাবে অসাধারণ প্রিমিয়াম লুক। গোল্ডেন, কালো এবং সাদা রংয়ে পাওয়া যাবে ফোনটি। স্মার্টফোনটির দাম পড়বে ১০ হাজার ৯৯০ টাকা।

ন্যাড়ো বেযেলের ৫.৪৫ ইঞ্চির ফুল ভিশন ডিসপ্লেতে সাপোর্ট করবে এইচডি প্লাস অর্থাৎ ১৪৪০/৭২০ রেজোল্যুশন। ২৯১ পিপিআই ডিসপ্লে ব্রাইটনেসের জন্য পাওয়া যাবে প্রাণবন্ত কালার আউটপুট। 
 
অ্যান্ড্রয়েড ৭.০ নুগাট অপারেটিং সিস্টেমচালিত এ স্মার্টফোনে ১ দশমিক ৩ গিগাহার্টজের কোয়াড-কোর প্রসেসর আছে। ২ গিগাবাইট র‌্যামের ডিভাইসটিতে ৩২ গিগাবাইট অভ্যন্তরীণ তথ্য সংরক্ষণের সুবিধা আছে, মাইক্রো এসডি কার্ডের মাধ্যমে সর্বোচ্চ ৬৪ গিগাবাইট পর্যন্ত বর্ধিত করা যাবে। ডিভাইসটিতে গ্রাফিকস হিসেবে ব্যবহার হয়েছে মালি-টি ৭২০।

পাওয়ারফুল সনি আইএমএক্স সেন্সরে ১৩ মেগাপিক্সেল ব্যাক ক্যামেরায় আছে ৫পি লেন্স এবং অ্যাপারচার ২.০। যার কারণে ব্যাক ক্যামেরাতে পাওয়া যাবে অসাধারণ ছবি। ৮ মেগাপিক্সেলের ফ্রন্ট ক্যামেরা আছে। 

ফোরজি সমর্থিত এ স্মার্টফোনে ডুয়াল সিম সমর্থন করবে। কানেক্টিভিটির জন্য আছে ওয়াই-ফাই, ব্লুটুথ ভার্সন ৪.২, ওটিজি, জিপিএস নেভিগেশন, প্রোক্সিমিটি, গ্র্যাভিটি লাইট ইত্যাদি। এছাড়া আছে বিভিন্ন স্মার্ট জেসচার এবং স্মার্ট এ্যাকশন। 

সর্বাধিক নিরাপত্তা দিতে হ্যান্ডসেটটিতে দেওয়া হয়েছে ফাস্ট ফিঙ্গার প্রিন্ট সুবিধা যা দিয়ে আপনি ভিন্ন ভিন্ন এ্যাপ অথবা পুরো হ্যান্ডসেট আনলক করতে পারবেন চোখের নিমিষেই। এছাড়া ফিঙ্গার প্রিন্ট বাটন দিয়ে তুলে ফেলা যাবে ফাস্ট ছবি।

বাংলাদেশ সময়: ১৪৫৩ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ০৪, ২০১৮
আরআর

নিউজিল্যান্ডের নতুন কোচ স্টিড
বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে রূপালী ব্যাংকের শ্রদ্ধা
খাগড়াছড়িতে জাতীয় শোকদিবস পালিত
ছাত্রলীগের দু’পক্ষের সংঘর্ষে আহত ৫
‘আমাদের ওপর থেকে আস্থা হারাবেন না’
বলিউড-টলিউড তারকাদের স্বাধীনতা দিবস উদযাপন
ময়মনসিংহে বিনম্র শ্রদ্ধায় শোকদিবস পালিত
আর্জেন্টিনায় মেসির সাময়িক অবসর!
কোটা আন্দোলনের নেত্রী বেলকুচি থেকে গ্রেফতার
‘বঙ্গবন্ধু না হলে বাংলাদেশ স্বাধীন হতো না’