কাঁঠালবাড়ী ঘাটে কর্মস্থলগামী মানুষের ভিড়

ইমতিয়াজ আহমেদ, ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

কর্মস্থলগামী মানুষের চাপ বেড়েছে কাঁঠালবাড়ী ঘটে। ছবি: বাংলানিউজ

মাদারীপুর: পবিত্র ঈদুল ফিতরের ছুটি শেষ হওয়ায় কর্মস্থলগামী মানুষের চাপ বেড়েছে শিবচরের কাঁঠালবাড়ী ঘাটে।

বৃহস্পতিবার (২১ জুন) সরেজমিনে দেখা যায়, সকাল থেকেই নৌযানে উঠতে যাত্রীদের প্রতিযোগিতা চলছে। কোনো মতে নিজের জায়গা দখল করে নিতে ব্যস্ত সকলে।

বিআইডব্লিউটিসি’র কাঁঠালবাড়ী ঘাট সূত্র জানায়, ঈদের ছুটি শেষ হবার পর বৃহস্পতিবারই সকাল থেকে ঘাট এলাকায় কর্মস্থলগামী মানুষের চাপ বেড়েছে। লঞ্চ, স্পিডবোট ও ফেরিতে ছিল যাত্রী ও পরিবহনের যথেষ্ট চাপ। নৌরুটে ৮৭টি লঞ্চ, ২ শতাধিক স্পিডবোট ও ১৯টি ফেরি যাত্রী পরিবহনে নিয়োজিত রয়েছে।

মাদারীপুর থেকে ঢাকার উদ্দেশে যাওয়া যাত্রী মো. রফিক বাংলানিউজকে জানান, পরিবহনে যেমন ভিড়, লঞ্চেও তেমন ভিড়। প্রয়োজনের তুলনায় বেশি সংখ্যক যাত্রী মনে হচ্ছে একেকটি লঞ্চে।

ঢাকাগামী যাত্রীরা বাংলানিউজকে জানান, সকালের দিকে আবহাওয়া কিছুটা স্বাভাবিক থাকে, সেজন্য সকালের দিকেই তারা ঢাকার উদ্দেশে যাত্রা করেছে। বিকেলের দিকে গত কয়েকদিন ধরেই বাতাস ও বৃষ্টি হচ্ছে। ফলে বেশিরভাগ যাত্রী ঢাকা যাওয়ার সময়টা সকালে বেছে নেয়ায় ভিড় বেশি হয়েছে।

কাঁঠালবাড়ী ফেরিঘাট সূত্র জানায়, গত কয়েকদিনের তুলনায় বৃহস্পতিবার সকাল থেকে যাত্রীদের ভিড় কিছুটা বেশি। তবে পর্যাপ্ত ফেরি থাকায় কোন দুর্ভোগ নেই ঘাটে।

বিআইডব্লিউটিএ’র কাঁঠালবাড়ী লঞ্চ ঘাটের ট্রাফিক ইন্সপেক্টর আক্তার হোসেন জানান, বৃহস্পতিবার সকাল থেকেই যাত্রীদের ভিড় বেড়েছে ঘাটে। বেশিরভাগ যাত্রীই লঞ্চে পদ্মা পার হচ্ছে। আবহাওয়া স্বাভাবিক থাকায় পদ্মা শান্ত রয়েছে। তারপরও লঞ্চে সতর্কতার সঙ্গে যাত্রী পার করা হচ্ছে।

বাংলাদেশ সময়: ১১২৯ ঘণ্টা, জুন ২১, ২০১৮
এনটি

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন: ফেরি পারাপার
সংসদে জামায়াত নিষিদ্ধের বিল আনার দাবি
প্রথম দিনেই এসকে ট্রিমসের প্রতি শেয়ারে লাভ ৩২ টাকা
পেরিসিচের গোলে সমতায় ক্রোয়েশিয়া
আত্মঘাতী গোলে এগিয়ে গেল ফ্রান্স
বিদ্যুতের খুঁটিতে আগুন, অল্পের জন্য রক্ষা পাশের ভবন
সভ্য সমাজের ভিত্তি হলো আইন
বেসরকারি শিক্ষক-কর্মচারীদের জুনের বেতনের চেক হস্তান্তর
সিসিকে নৌকার পক্ষে ৯ মেয়রের গণসংযোগ
তাসফিয়া হত্যা মামলায় ফের ২ দিনের রিমান্ডে আসিফ
ফাইনালের মহারণে মাঠে নেমেছে ফ্রান্স-ক্রোয়েশিয়া