গ্রীষ্মে শরীর শীতল রাখবে অ্যালোভেরা পাঞ্চ

স্বাস্থ্য ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

.

ঢাকা: প্রাচীনকাল থেকেই ভারতীয় উপমহাদেশের ভেষজশাস্ত্রে একটি গুরুত্বপূর্ণ স্থান অধিকার করে থাকা উদ্ভিদের নাম অ্যালোভেরা। পুষ্টিবিদদের মতে, অ্যালোভেরা এন্টিটক্সিডেন্টে ভরপুর। বিশেষ করে গ্রীষ্মে এই উদ্ভিদের গুরুত্ব অপরিসীম। কারণ এই মৌসুমেই শরীরে সংক্রমণের সম্ভাবনা বেশি। তাছাড়া শরীর শীতল রাখতেও বিশেষ ভূমিকা পালন করে এ উদ্ভিদ।

অ্যালোভেরা বা ঘৃতকুমারী একটি বহুজীবী ভেষজ উদ্ভিদ এবং দেখতে অনেকটা আনারস গাছের মতো। এর পাতাগুলো পুরু, দুই পাশে কাঁটা এবং ভেতরে পিচ্ছিল শাঁস (জেল) থাকে।

আয়ুর্বেদি চিকিৎসায় বহুলভাবে ব্যবহৃত হয় উদ্ভিতটি। ত্বকের ফুসকুড়ি, পোড়া ও খুশকি দূর করতে অ্যালোভেরা জেল লাগানো হয়। এছাড়াও জুস তৈরিতে, খাদ্যের পুষ্টিবর্ধন উপাদান হিসেবে ও ঘরবাড়ির সাজ-সজ্জায় ব্যবহৃত হয় এ উদ্ভিদ। 

এর জেল পান করলে পরিপাকক্রিয়া সহজ হয় এবং কোষ্ঠকাঠিন্য দূর হয়। শরীরের শক্তি যোগানসহ ওজনকে ঠিক রাখতে সাহায্য করে তা।

সুতরাং গ্রীষ্মকালে খেলাধুলা, মর্নিং ওয়াক বা শারীরিক কসরতের সময় দেহকে ঠাণ্ডা রাখতে ও ক্লান্তি দূর করতে পান করতে পারেন বিভিন্ন ভেষজ সবজি মিশ্রিত এক গ্লাস অ্যালোভেরা পাঞ্চ (পাঁচমিশালি)। ঘরে বসে নিজে নিজে অ্যালোভেরা পাঞ্চ তৈরির সুবিধার্থে বাংলানিউজের পাঠকদের জন্য দেওয়া হলো তা প্রস্তুতের একটি কার্যকর রেসিপি।

উপাদান:
শসা ১টি
লেবু ১টি
কমলা ১টি
সতেজ মিন্ট (পুদিনা)
ডাব/নারিকেলের পানি ২৫০ মিলিলিটার
অ্যালোভেরা জুস ১৫০ মিলিলিটার
মধু ৫ মিলিলিটার

প্রস্তুত পদ্ধতি:
১. ছোট ছোট টুকরায় শসা, কমলা লেবু ও পুদিনা একত্র করে এর মধ্যে লেবুর রস ঢেলে দিন।
২. আলাদা একটি পাত্রে ডাবের পানি, অ্যালোভেরা জুস ও মধুর মিশ্রণ তৈরি করুন।
৩. মিশ্রণটির সঙ্গে শসা, কমলা লেবু ও পুদিনা একত্র করে ভালোভাবে ব্লেন্ড করে গ্লাসে পরিবেশন করুন।

বাংলাদেশ সময়: ০৯০০ ঘণ্টা, মে ১৭, ২০১৮
এনএইচটি/এএ

ইভিএম সুষ্ঠু নির্বাচনের পরিপন্থি: রিজভী
সুপারির খোসায় ২৪ হাজার ইয়াবা, আটক ৩
দেশে কোটা সংস্কার নিয়ে রাজনীতি চলছে
জেনেভা ক্যাম্পে ফের অভিযান, আটক শতাধিক
জঙ্গি সম্পৃক্ততায় মালয়েশিয়ায় গ্রেফতার ৭
যে কারণে আম্পায়ার থেকে বল নিয়েছিলেন ধোনি
গ্রীষ্মের ছুটি কাটাতে লন্ডনে অভিষেক-ঐশ্বরিয়া-আরাধ্য
কার্যকর ব্যবস্থা নেয়ায় এবার প্রশ্নফাঁস হয়নি
পরিবেশ পদক পেল ওয়ালটন হাই-টেক
এইচএসসিতে পাসের হারে এবারও এগিয়ে মেয়েরা