রাজবাড়ীতে ডায়রিয়ার প্রকোপ

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

হাসপাতালে চিকিৎসা নিচ্ছে ডায়রিয়ায় আক্রান্ত রোগীরা। ছবি: বাংলানিউজ

রাজবাড়ী: রাজবাড়ীতে ডায়রিয়া রোগের প্রকোপ দেখা দিয়েছে। এ রোগে আক্রান্ত হয়ে গত পাঁচদিনে রাজবাড়ী সদর হাসপাতালে চার শতাধিক রোগী চিকিৎসা নিয়েছেন বলে জানিয়েছেন হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ।

বুধবার (২৪ এপ্রিল) সকাল পর্যন্ত হাসপাতালে অর্ধশতাধিক ডায়রিয়া আক্রান্ত রোগী ভর্তি রয়েছেন। যাদের মধ্যে বেশিরভাগই নারী ও শিশু। রোগীর অনুপাতে হাসপাতালে বেড না থাকায় চিকিৎসা নিতে হাসপাতালের মেঝেসহ বারান্দায় অবস্থান নিয়েছেন রোগীরা।

হাসপাতালে ভর্তি হওয়া রোগী ও স্বজনদের অভিযোগ, ভর্তির পর হাসপাতাল থেকে তাদের খাবার স্যালাইন ছাড়া আর কিছুই দেওয়া হচ্ছে না। প্রয়োজনীয় ওষুধ তাদের বাইরে থেকে কিনতে হচ্ছে। এছাড়া টয়লেটের যথাযথ ব্যবস্থা না থাকায় চরম দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে তাদের।

রাজবাড়ী সদর হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডা. আলী আহসান বলেন, গত পাঁচদিনে রাজবাড়ী সদর হাসপাতালে চার শতাধিক ডায়রিয়া আক্রান্ত রোগী চিকিৎসা নিয়েছেন। এখনো ডায়রিয়া ওয়ার্ডে অর্ধশতাধিক রোগী ভর্তি আছেন। এদের মধ্যে নারী ও শিশুর সংখ্যা বেশি।

তিনি বলেন, হঠাৎ করে ডায়রিয়া রোগীর সংখ্যা বেড়ে যাওয়ায় চিকিৎসা সেবা দিতে হিমশিম খেতে হচ্ছে। কারণ, ডায়রিয়া ওয়ার্ডে মাত্র ছয়জন রোগী রাখার জায়গা রয়েছে। কিন্তু, রোগীর সংখ্যা দাঁড়িয়েছে কয়েকগুণ বেশি। তাই রোগীদের হাসপাতালের বারান্দাসহ বিভিন্ন স্থানে রেখে চিকিৎসা সেবা দেওয়া হচ্ছে।

এছাড়া, ডায়রিয়া আক্রান্ত রোগীর সু-চিকিৎসা নিশ্চিত করতে আপাতত হাসপাতালের সব স্টাফদের ছুটি বন্ধ রাখা হয়েছে।

রাজবাড়ীর সিভিল সার্জন ডা. মো. রহিম বকস বলেন, সাধারণত রাজবাড়ী সদর হাসপাতালে ৮-১০ জন রোগী ডায়রিয়ায় আক্রান্ত হয়ে ভর্তি হন। কিন্তু, গত কয়েকদিন ধরে দেখা যাচ্ছে স্বাভাবিকের চেয়ে অনেক বেশি রোগী ডায়রিয়ায় আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হচ্ছেন।

জেলার বিভিন্ন গ্রাম থেকে রোগী আসছেন। ধারণা করা হচ্ছে, গ্রামের মানুষ প্রচণ্ড গরমে খাবার ঠিকমতো সংরক্ষণ না করে সেই বাসি খাবার ভাল করে হাত না ধুয়েই হয়তো খাচ্ছে। এ কারণে তারা ডায়রিয়ায় আক্রান্ত হচ্ছে।

গ্রামপর্যায়ে স্বাস্থ্য বিভাগের যেসব মাঠ কর্মীরা রয়েছেন তাদের সাধারণ মানুষের মধ্যে স্বাস্থ্য শিক্ষা বাড়ানোর নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। আশা করা হচ্ছে, স্বাস্থ্য শিক্ষার মাধ্যমে মানুষকে সচেতন করে এ রোগ প্রতিরোধ করা সম্ভব। কারণ, মানুষের ব্যক্তিগত পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতায় যখন ঘাটতি হয়, তখনই এ রোগের প্রকোপ বেড়ে যায়।
 
তিনি আরো বলেন, রাজবাড়ীতে ডায়রিয়া আক্রান্ত রোগীদের এখনো পর্যন্ত গুরুতর কোনো সমস্যা হয়নি। তবে সদর হাসপাতালে পর্যাপ্ত স্যালাইন নেই, এ ব্যাপারে ইতোমধ্যেই ঢাকায় যোগাযোগ করা হয়েছে। এছাড়া, হাসপাতালের পরিবেশ সুন্দর রাখতে সবসময় পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন রাখা হচ্ছে।

ডায়রিয়া প্রতিরোধে পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন ও পুষ্টিকর খাবার খাওয়া, খাওয়ার আগে ভালোভাবে হাত ধুয়ে নেওয়া, বিশুদ্ধ পানির ব্যবহার এবং আক্রান্তদের পর্যাপ্ত স্যালাইন খাওয়ার পরামর্শ দিয়েছেন জেলা স্বাস্থ্য বিভাগের শীর্ষ এই কর্মকর্তা।

বাংলাদেশ সময়: ১৫৪২ ঘণ্টা, এপ্রিল ২৫, ২০১৮
আরএ

সুস্থ হয়ে উঠছেন সমাজকল্যাণ মন্ত্রী
বাংলাদেশের আতিথেয়তায় মুগ্ধ রাজনাথ সিং
নতুন পদ্ধতিতে পাবিপ্রবি’র ভর্তি পরীক্ষা
সুস্থ হয়ে উঠছেন রাবি ছাত্র তরিকুল
জলবায়ু ঝুঁকির মোকাবেলায় বিনিয়োগ বাড়াতে হবে
হাটহাজারীতে বিদ্যুৎস্পৃষ্টে দুই ভাইয়ের মৃত্যু
 ‍খুলশীতে রিজার্ভ ট্যাংকে মা-মেয়ের মরদেহ
বিজয়নগরে ছোট দুই ভাইয়ের হাতে বড় ভাই খুন 
বয়স্ক ও মুক্তিযোদ্ধাদের ৫ বছরের মাল্টিপল ভিসা দেবে ভারত
শিরোপা ক্রোয়েশিয়ারই!