থ্যালাসেমিয়া আক্রান্তদের বিবাহে মানা!

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

থ্যালাসেমিয়া সচেতন কার্যক্রম প্রসঙ্গে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলন

ঢাকা: থ্যালাসেমিয়া রোগ প্রতিরোধে তরুণ সমাজকে সচেতন হওয়ার আহ্বান জানিয়ে স্বাস্থ্য প্রতিমন্ত্রী জাহেদ মালেক বলেছেন, বিবাহপূর্ব স্ক্রিনিং এর মাধ্যমে থ্যালাসেমিয়া রোগের জন্য ঝুঁকিপূর্ণ দম্পতি নির্ণয় করে বিয়ে করা থেকে বিরত থাকা উচিত।

মঙ্গলবার (৯ জানুয়ারি) স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ে আয়োজিত থ্যালাসেমিয়া সচেতন কার্যক্রম প্রসঙ্গে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে এ কথা বলেন স্বাস্থ্য প্রতিমন্ত্রী।

জাহেদ মালেক বলেন, ঝুঁকিপূর্ণ দম্পতির বিনামূল্যে গর্ভস্থ ভ্রুণ পরীক্ষা করা এবং থ্যালাসেমিয়া রোগীর জাতীয় রেজিস্ট্রি কার্যক্রম গ্রহণ করেছে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়। ২০২৮ সালের মধ্যে বাংলাদেশে থ্যালাসেমিয়া থাকবে না বলে কার্যক্রমের টার্গেট নির্ধারণ করা হয়েছে।

বুধবার (১০ জানুয়ারি) বঙ্গবন্ধুর স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবসে দেশব্যাপী এ কার্যক্রম চলবে। সকাল ১০টায় জাতীয় জাদুঘরে স্বাস্থ্যমন্ত্রী মোহম্মদ নাসিম কার্যক্রমের উদ্বোধন করবেন।

থ্যালাসেমিয়া একটি বংশগত রক্তের রোগ, এর যেহেতু স্থায়ী প্রতিষেধক নেই তাই একটি রূপরেখা প্রণয়ন করেছে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর, জানান স্বাস্থ্য প্রতিমন্ত্রী।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরেরর মহাপরিচালক আবুল কালাম আজাদ বলেন, জরিপ করে জানা গেছে থ্যালাসেমিয়া বাংলাদেশে একটি বড় স্বাস্থ্য সমস্যা। দেশে এক কোটি ১০ লাখ মানুষ অজ্ঞাতসারে থ্যালাসেমিয়া রোগের বাহক। প্রতিবছর ৭ হাজার শিশু 
থ্যালাসেমিয়া নিয়ে জন্ম নেয়। বর্তমানে রোগী সংখ্যা ৬০ হাজার।

সংবাদ সম্মেলনে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের পরিচালক (হাসপাতাল) ডা. কাজী জাহাঙ্গীর হোসেইন উপস্থিত ছিলেন।

বাংলাদেশ সময়: ১৬৪০ ঘণ্টা, জানুয়ারি ০৯, ২০১৮
কেজেড/এমজেএফ

সুনামগঞ্জে বিদেশি রিভলবারসহ যুবক আটক
পদ্মা সেতুর পিলারে উঠছে দ্বিতীয় স্প্যান
গুরুদাসপুরে ইয়াবাসহ মাদক ব্যবসায়ী আটক
বিশ্ব ইজতেমার ক্রমবিকাশ
মাঝরাতে শীতার্তদের পাশে ইউএনও
‘পদ-পদবী চিরস্থায়ী নয়’
ঠাকুরগাঁওয়ে দুই ইয়াবা ব্যবসায়ী আটক
ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় স্কুলছাত্রীর আত্মহত্যা
সোমবার প্রকাশিত হবে বামফ্রন্টের প্রার্থী তালিকা
ইতিহাসের সাক্ষী ঘুঘুডাঙ্গা জমিদার বাড়ি




Alexa