বরিশালে ভিটামিন ‘এ’ ক্যাপসুল খাবে সাড়ে ৩ লাখ শিশু

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

বরিশাল জেলা সিভিল সার্জনের আয়োজনে এক অরিয়েন্টশন কর্মশালা

বরিশাল: আগামী শনিবার (২৩ ডিসেম্বর) সারাদেশে একযোগে ভিটামিন ‘এ’ প্লাস ক্যাম্পেইনের দ্বিতীয় রাউন্ড অনুষ্ঠিত হবে। ওইদিন বরিশাল সিটি করপোরেশনসহ বরিশাল জেলার ১০ উপজেলায় ৩ লাখ ৫৩ হাজার ১৩৬ শিশুকে ভিটামিন ‘এ’ প্লাস ক্যাপসুল খাওয়ানো হবে।

এর মধ্যে বরিশাল জেলার ১০ উপজেলায় ৩ লাখ ৪ হাজার ৩৫১ ও সিটি এলাকায় ৪৮ হাজার ৭৮৫ জন শিশুকে ভিটামিন ‘এ’ প্লাস ক্যাপসুল খাওয়ানো হবে।

এ লক্ষে বুধবার (২০ ডিসেম্বর) বেলা সাড়ে ১১টায় বরিশাল জেলা সিভিল সার্জনের আয়োজনে এক অরিয়েন্টশন কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়।

সিভিল সার্জন কার্যলয়ের সভাকক্ষে অনুষ্ঠিত অরিয়েন্টেশনে জানানো হয়, আগামী ২৩ ডিসেম্বর জাতীয় ভিটামিন ‘এ’ প্লাস ক্যাম্পেইনের আওতায় বরিশাল জেলার ১০ উপজেলার ছয় থেকে ৫৯ মাস বয়সী সব শিশুকে ভিটামিন ‘এ’ প্লাস ক্যাপসুল খাওয়ানো হবে। 

এর মধ্যে ৬ থেকে ১১ মাস বয়সী ৩২ হাজার ৫১৯ জন শিশুকে ১ লাখ ওট ক্ষমতা সম্পন্ন এবং ১২ থেকে ৫৯ বয়সের ২ লাখ ৭১ হাজার ৮৩২ জন শিশুকে ২ লাখ ওট (ইউনিট) ক্ষমতা সম্পন্ন ভিটামিন ‘এ’ প্লাস ক্যাপসুল খাওয়ানো হবে।

এ সময় জেলা সিভিল সার্জন ডা. মো. মনোয়ার হোসেন বাংলানিউজকে বলেন, ওইদিন বরিশালের ১০ উপজেলার ৮৫টি ইউনিয়নের ২৫৫টি ওয়ার্ডে ২ হাজার ১৫৫টি টিকা দান কেন্দ্রের মাধ্যমে এ ক্যাপসুল খাওয়ানো হবে। 

বরিশাল সিভিল সার্জনের এ কর্মসূচি বাস্তবায়ন করতে স্বেচ্ছাসেবক হিসেবে কাজ করবেন মোট ৪ হাজার ৩১০ জন কর্মী। সকাল ৮টা থেকে বিকেল ৪টা পর্যন্ত টিকাদান কেন্দ্র খোলা থাকবে। তবে দূর্গম এলাকা জেলার মেহেন্দ্রিগঞ্জ, মুলাদী ও হিজলা উপজেলায় চারদিন ব্যাপী বাদপড়া শিশুদের ভিটামিন ‘এ’ ক্যাপসুল থাওয়ানো হবে। 

তিনি বলেন, ইতোমধ্যে এ কর্মসূচি বাস্তবায়নের লক্ষ্যে প্রচার প্রচারণা চালানো হচ্ছে। পাশাপাশি শুক্রবার জুম্মাবাদ সব মসজিদে ইমামরা জেলাবাসীকে অবহিত করবেন। অপুষ্টিজনিত অন্ধত্ব থেকে শিশুকে রক্ষা করতে এই ভিটামিনের বিকল্প নেই বলে তিনি মন্তব্য করেন।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন- ডিপুটি সিভিল সার্জন ডা. শ্যামল কৃষ্ণ মন্ডল ও জেলা ইপিআই সুপারিনটেনডেন্ট মো. বজলুল রহমান প্রমুখ।

এদিকে বরিশাল সিটি করপোরেশনের প্রধান স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা. মো. মতিউর রহমান জানিয়েছেন, ২৩ ডিসেম্বর বরিশাল সিটি করপোরেশনের আওতায় ২২০টি কেন্দ্রের মাধ্যমে ৪৮ হাজার ৭৮৫ জন শিশুকে এই ক্যাপসুল খাওয়ানোর লক্ষ্যমাত্রা ধরা হয়েছে। 

এর মধ্যে ৬ থেকে ১১ মাস বয়সী ৪ হাজার ৮৭০ জন শিশুকে ১ লাখ ওট ক্ষমতা সম্পন্ন এবং ১২ থেকে ৫৯ বয়সের ৪৩ হাজার ৯১৫ শিশুকে ২ লাখ ওট ক্ষমতা সম্পন্ন ভিটামিন খাওয়ানো হবে। 

ওইদিন সিটি করপোরেশনের স্বাস্থ্য বিভাগ, সদর হাসপাতাল, শেরেবাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালসহ বিভিন্ন সরকারি বেসরকারি ২২টি প্রতিষ্ঠানের ৪৭৪ জন কর্মী শিশুদের ভিটামিন ‘এ’ ক্যাপসুল খাওয়ানোর কাজে নিয়োজিত  করবেন বলে জানান এই স্বাস্থ্য কর্মকর্তা। 

বাংলাদেশ সময়: ১৪২৩ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ২০, ২০১৭
এমএস/জিপি

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় জয়ন্তিকা এক্সপ্রেস ট্রেনের চালককে মারধর
জাতীয় বাজেট প্রক্রিয়ায় মৌলিক পরিবর্তন জরুরি
অনার্স প্রথম বর্ষ বিশেষ পরীক্ষার ফরম পূরণ শুরু শনিবার
হুমায়ূন ভাই আমাকে কখনো বকা দেননি
টুকুসহ তিন বিএনপি নেতা রিমান্ডে
চৌদ্দগ্রামে সড়ক দুর্ঘটনায় কাভার্ডভ্যান চালক নিহত
এমন উচ্ছ্বাস তাদেরই মানায়
শেরপুরে ট্রাকচাপায় ট্রলির হেলপার নিহত
গর্বের সঙ্গেই জার্মানির জার্সি পড়েন ওজিল
কক্সবাজারে অস্ত্র মামলায় যুবকের কারাদণ্ড