মেদ কমাতে যেসব খাবার বর্জনীয়

স্বাস্থ্য ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

মেদ কমাতে বর্জনীয় খাবার। ছবি: সংগৃহীত

ঢাকা: বিশেষজ্ঞরা বলেন, দেহের অতিরিক্ত মেদ-ভুড়ি কমাতে কোনো সহজ রাস্তা খোলা নেই। এক্ষেত্রে প্রয়োজন কঠোর অধ্যাবসায় ও ইচ্ছাশক্তি। যদি মনে করেন, ব্যায়ামের মাধ্যমে শুধু ঘাম ঝরিয়েই মেদ কমানো সম্ভব, তবে তা ভুল। নিয়মিত ব্যায়ামের পাশাপাশি দরকার পরিকল্পিত খাদ্যাভ্যাস। 

অনেক সময়ই ভুল খাবার গ্রহণের ফলে মেদ কমাতে ব্যর্থ হতে হয়। কিছু কিছু খাবার আছে যাতে থাকে উচ্চমাত্রার ক্যালরি, কিন্তু দেহের জন্য তেমন পুষ্টিকর নয় এসব খাবার। দেহের অতিরিক্ত মেদ কমানোর জন্য এসব খাবার অবশ্যই বর্জনীয় বলে মনে করেন স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞরা।
ফ্রেঞ্চ ফ্রাই ও আলুর চিপস। ছবি: সংগৃহীত
ফ্রেঞ্চ ফ্রাই ও আলুর চিপস
আলু দেহের জন্য একটি পুষ্টিকর খাবার হলেও এ থেকে তৈরি চিপস বা ফ্রেঞ্চ ফ্রাই কোনোটাই দেহের জন্য তেমন উপকারী নয়। ১০০ গ্রাম ফ্রেঞ্চ ফ্রাইয়ে থাকে ৩১২ ক্যালরি। যারা মেদ কমাতে আগ্রহী তাদের ফ্রেঞ্চ ফ্রাই বা চিপস একেবারেই খাওয়া উচিত নয়। 
পাউরুটি। ছবি: সংগৃহীতপাউরুটি
পাউরুটি তৈরি হয় ময়দা (রিফাইনড ফ্লাওয়ার) থেকে। পাউরুটি তৈরির সময়ই এর মধ্যকার বেশির ভাগ পুষ্টি উপাদান নষ্ট হয়ে যায়। তাছাড়া পরিশোধিত শস্যদানায় ফ্যাটের পরিমাণ বেশি থাকে। এতে ক্যালরির পরিমাণও বেশি, যা চাহিদার অতিরিক্ত গ্রহণে ফ্যাটে রূপান্তরিত হয়। 
পরিশোধিত চিনি। ছবি: সংগৃহীতপরিশোধিত চিনি
পরিশোধিত বা রিফাইনড চিনিকে বলা হয় মেদ-ভুড়ির সবচেয়ে বড় শত্রু। শিল্প-কারখানায় রিফাইনিং পদ্ধতিতে চিনি তৈরির সময় ভিটামিন, মিনারেল, প্রোটিন, এনজাইম ও অন্যান্য উপকারী পুষ্টি উপাদান দূর হয়ে যায়। অনেক সময় চিনিতে মিষ্টতা আনতে বাড়তি রাসায়নিক মিশ্রিত করা হয়। আর পরিশোধন প্রক্রিয়ায় চিনিতে যুক্ত হয় আরও ক্ষতিকর নানা উপাদান। পরিশোধিত চিনি শুধু অতিরিক্ত ক্যালোরিই সরবরাহ করে। এ থেকে তৈরি বিভিন্ন খাবার পাকস্থলীর ফ্যাটি টিস্যুকে সরাসরি প্রভাবিত করে। মেদ কমানোর ইচ্ছা থাকলে পরিশোধিত চিনি সম্পূর্ণভাবে বর্জনীয়।

অ্যালকোহোল। ছবি: সংগৃহীত
অ্যালকোহোল

এক গ্রাম অ্যালকোহলে ক্যালরির পরিমাণ সাত। যেহেতু অ্যালকোহলের কোনো পুষ্টিগুণ নেই, তাই এই ক্যালরিকে 'ফাঁকা ক্যালরি' বলে, যা দিয়ে শরীরের কোনো উপকার হয় না, কেবল ওজনই বেড়ে চলে। গবেষণায় দেখা গেছে অ্যালকোহল অনেক সময় ক্ষুধা বাড়িয়ে দেয়। ফলে মেদ কমানো আরও কষ্টকর হয়ে দাঁড়ায়।

প্রক্রিয়াজাত মাংস। ছবি: সংগৃহীত
প্রক্রিয়াজাত মাংস

প্রক্রিয়াজাত মাংস বা প্রোসেসড মিট যেমন- বেকন, সসেজ, হ্যাম ইত্যাদিতে ক্যালরির পরিমাণ বেশি থাকে। তাছাড়া বিভিন্ন ধরনের অস্বাস্থ্যকর ফ্যাটেও ভরপুর থাকে এসব খাবার। এসব ফ্যাট দেহের ওজন বাড়ানোর পাশাপাশি হৃদযন্ত্রেরও ক্ষতি করে।
সালাদ ড্রেসিং ও সস। ছবি: সংগৃহীত

সালাদ ড্রেসিং ও সস
সালাদ ড্রেসিং ও সসে উচ্চমাত্রায় ক্যালরি বিদ্যমান। দোকান থেকে কেনা উচ্চ ক্যালরির ড্রেসিংয়ের বদলে জলপাই তেল ও ভিনেগার দিয়ে নিজের জন্য সালাদ ড্রেসিং ঘরেই তৈরি করুন। 

বাংলাদেশ সময়: ১৪১৩ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ২৯, ২০১৭
এনএইচটি/এএ

সুপারির খোসায় ২৪ হাজার ইয়াবা, আটক ৩
দেশে কোটা সংস্কার নিয়ে রাজনীতি চলছে
জেনেভা ক্যাম্পে ফের অভিযান, আটক শতাধিক
জঙ্গি সম্পৃক্ততায় মালয়েশিয়ায় গ্রেফতার ৭
যে কারণে আম্পায়ার থেকে বল নিয়েছিলেন ধোনি
গ্রীষ্মের ছুটি কাটাতে লন্ডনে অভিষেক-ঐশ্বরিয়া-আরাধ্য
কার্যকর ব্যবস্থা নেয়ায় এবার প্রশ্নফাঁস হয়নি
পরিবেশ পদক পেল ওয়ালটন হাই-টেক
এইচএসসিতে পাসের হারে এবারও এগিয়ে মেয়েরা 
হুমায়ূন আহমেদের লেখা ১০ গান (ভিডিও)