২০ লক্ষ টাকায় কনার মিউজিক ভিডিও!

বিনোদন ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

মিউজিক ভিডিওর দৃশ্যে কনা, ছবি: সংগৃহীত

কনার গাওয়া নজরুলসংগীত ‘প্রিয় যাই যাই’-এর ভিডিও তৈরি করতে প্রায় ১৫ লক্ষ টাকা ব্যয় হয়েছিলো। এটি ২০১২ সালের ঘটনা। কনা-নিরব জুটিকে নিয়ে ভিডিওটি তৈরি করেছিলেন গাজী শুভ্র। সেই কনাই এবার নিজেকেই টেক্কা দিতে যাচ্ছেন। জনপ্রিয় এই গায়িকা এবার ২০ লক্ষ টাকা ঢেলেছেন একটি মৌলিক গানের মিউজিক ভিডিওতে।  

ঈদুল ফিতর উপলক্ষে কনার গাওয়া ‘খামোখাই ভালোবাসি’ গানটির ভিডিও তৈরিতে প্রায় ২০ লক্ষ টাকা ব্যয় করেছেন। সংশ্লিষ্টদের মতে দেশের সর্বোচ্চ ব্যয়বহুল মিউজিক ভিডিও হতে যাচ্ছে এটি। 

গানটির ভিডিও চিত্রধারণ নিয়ে কনা বলেন, ‘আমার গানটি একদম রোমান্টিক। তাই পরিকল্পনা করছিলাম একটু ভিন্ন কিছু করতে। একঘেয়ে মিউজিক ভিডিও থেকে বের হয়ে একটু হলিউড স্টাইলে, একটু অন্যরকম একটা মিউজিক ভিডিও করার কথা ভাবছিলাম। যেখানে থাকবে গানের সঙ্গে মিল রেখে ভিএফএক্সের চমৎকার আয়োজন। যেটি এর আগে বাংলাদেশের কোনও মিউজিক ভিডিওতে দর্শকরা দেখেননি! অবশেষে তাই হলো। আমি বিষয়টি নিয়ে খুবই উচ্ছ্বসিত।’ 

দিলশাদ নাহার কনার গাওয়া ‘খামোখাই ভালোবাসি’র ভিডিও তৈরি হয়েছে সিএমভির প্রযোজনায়। কারিগরি সহযোগিতা দিচ্ছে মোশনরক এন্টারটেইনমেন্ট। তেজগাঁওয়ের কোক ফ্যাক্টরিতে ভিডিওটির শুটিং শেষ হলো সম্প্রতি। 

‘খামোখাই ভালোবাসি’ নামের এই গানটি বাংলাদেশের মিউজিক ভিডিওর ইতিহাসের দু’টি মাইলফলক ছুঁয়ে দিয়েছে মুক্তির আগেই। এর মধ্যে একটি ব্যয়বহুল বিচারে, অন্যটি নির্মাণ প্রযুক্তিগতভাবে। 
সাজিদ সরকারের সুর ও সংগীত পরিচালনায় ‘খামোখাই ভালোবাসি’ শিরোনামের গানটির মিউজিক ভিডিওটি তৈরি করেছেন পনি আবেদিন। এর আইডিয়া, ক্রিয়েটিভ ডিরেকশন, পোশাক ও কোরিওগ্রাফিতেও ছিলেন পরিচালক নিজেই। নির্মাতা জানান, অনেক খাটতে হয়েছে কনাকে এই মিউজিক ভিডিওর জন্য। একটানা ২২ ঘণ্টা শুটিং করতে হয়েছে তাকে। 

নির্মাতা পনি আবেদিন ও কনামিউজিক ভিডিওটি সম্পর্কে পনি আবেদিন আরও বলেন, ‘গানের গল্পের থিম অনুযায়ী এই ধরনের বনজঙ্গল দেশে আছে। সেখানে গিয়ে শুটিং করা একেবারেই অসম্ভব। তাই আমরা গল্পের কনসেপ্ট মাথায় রেখে কোক ফ্যাক্টরিকেই বেছে নিয়েছিলাম আর সেট সাজিয়েছিলাম একদম অন্যভাবে, যেখানে প্রায় ছোট বড় সব মিলিয়ে ১০০০ গাছ আমাদেরকে ম্যানেজ করতে  হয়েছিলো। আর ব্যাকগ্রাউন্ডে ক্রোমার সেটের দৈর্ঘ্য ছিলো ১৫০ ফিট! সবার আগে আমাদের মাথায় ছিলো এমন কিছু একটা বানাবো যা এর আগে বাংলাদেশের কোনও মিউজিক ভিডিওতে দেখা যায়নি।’

নির্মাতা আরও জানান, আন্তর্জাতিক ভিএফএক্স স্টুডিওর মতো এখানে নিঊক-মায়ার ওয়ার্কফ্লো দিয়ে কাজ হয়েছে। তাই এটা অন্যান্য কাজ থেকে একটু ভিন্ন ধরনের ভিএফএক্স হবে বলে আশা করছেন তিনি। ৫০ দিনেরও বেশি সময় লেগেছে ভিডিওটি তৈরি করতে। যেখানে সার্বক্ষণিক একসাথে কাজ করেছে থ্রিডি মডেলার, ভিএফএক্স সুপার ভাইজর, ভিএফএক্স আর্টিস্ট ও কালারিস্ট।  

ঈদ উৎসবকে সামনে রেখে তৈরি এই ভিডিওতে কনাকে দেখা যাবে রাজকুমারি রূপে, সাদা গাউনে। এতে তার সঙ্গে মডেল ফাইজকে পাওয়া যাবে সেল্টিক যুগের রাজকুমারের পোশাকে, তার কোমরে ঝুলবে তরবারি! 

নির্মাতা জানান, এই মুহূর্তে ভিডিওটির ভিএফএক্সের কাজ চলছে। এটি করছে ডটথ্রি প্রোডাকশনের সিস্টার কোম্পানি বিখ্যাত ভিএফএক্স স্টুডিও ‘স্টুডিও মনস্টার’। 

প্রযোজক এসকে সাহেদ আলী জানান, শিগগিরই ‘খামোখাই ভালোবাসি’ ভিডিওটি মুক্তি পাচ্ছে সিএমভির অফিসিয়াল ইউটিউব চ্যানেলে।

* ভিডিওটির বিহাইন্ড দ্য সিন: 

বাংলাদেশ সময়: ১৩৫০ ঘণ্টা, জুন ১৮, ২০১৭
এসও 


রবীন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার ড. ওয়াহাব আর নেই
রাজশাহীতে ফেনসিডিলসহ দুই মাদক ব্যবসায়ী আটক
‘সচ্চরিত্রবান’ না হলে রসিক নির্বাচনে মনোনয়নপত্র বাতিল!
কামরাঙ্গীচরে স্কুলছাত্রীর আত্মহত্যা
চট্টগ্রামে নাফিস-গেইল-মালিঙ্গারা

Alexa