মৌসুমীকে ঝালমুড়ি খাইয়ে বিল দিতে পারলেন না অপূর্ব!

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

‘মিডনাইট লাভ’ নাটকের দৃশ্যে মৌসুমী ও অপূর্ব, ছবি: রাজীন চৌধুরী-বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

পার্ক, তার ওপর বিকেল। হাওয়া খেতে আসা মানুষের অভাব নেই। ছেলে-বুড়ো সবাই আছেন, ছড়ানো ছিটানো। একে একে হঠাৎ সবার খেয়াল হলো যে, পার্কের একটি বেঞ্চে বসে কথা বলছে দু’জন মানুষ, মুখগুলো চেনা জানা। কৌতুহলী মানুষ ততক্ষণে ঘিরে ধরেছে তাদেরকে। কাছে যেতেই দেখা গেলো, চিত্রনায়িকা মৌসুমী আর টিভি নাটকের অভিনেতা অপূর্ব বসে ঝালমুড়ি খাচ্ছেন। পাশেই দু’জনের লাগেজ। এটা যে শুটিং- ততক্ষণে বুঝে ফেলেছেন সবাই। 

নাটকের ইউনিটের চাপ বেড়ে গেলো কয়েকগুণ। কৌতুহলী দর্শকদের ভিড়ভাট্টার মধ্যে এগিয়ে চললো শুটিং। ঠোঙা থেকে বের করে ঝালমুড়ি খাচ্ছেন অপূর্ব। সন্ধ্যা ছুঁই ছুঁই, দুই তারকার তখনো মেলেনি লাঞ্চের ফুরসত। তাছাড়া শীতের দিন বলেই কি-না মুড়ির স্বাদটা একটু বেশিই ঠেকলো মৌসুমী আর অপূর্বর কাছে! অপূর্ব বিল পরিশোধ করার জন্য মুড়িওয়ালাকে ডাকলেন। পকেটে হাত ঢুকিয়ে টের পেলেন বিশ টাকা কেন, বিশ পয়সাও নেই তার কাছে। বিব্রতকর পরিস্থিতি সামাল দিলেন মৌসুমী। বিদেয় হলেন অপূর্ব। এরই মধ্যে একজন আগন্তুক এসে মৌসুমীকে জানালেন যে, অপূর্ব লোকটা ভালো নয়। মুখে বিস্ময় নিয়ে ফ্রেম আউট হলেন মৌসুমী। ব্যস, ঠিকঠাক দৃশ্যটি ক্যামেরাবন্দি করলেন নির্মাতা তারিক মুহাম্মদ হাসান। শনিবার (১৪ জানুয়ারি) রাজধানীর কাউলা এলাকায় ‘মিডনাইট লাভ’ নামের এই নাটকটির শুটিংয়ে অংশ নেন মৌসুমী আর অপূর্ব।      

জনপ্রিয় চিত্রনায়িকা খানিক বিরতি নিয়ে নাটকে অভিনয় করছেন। দ্বিতীয়বারের মতো তার সঙ্গে জুটি বেঁধেছেন অপূর্ব। এর আগে ওমর সানীর পরিচালনায় ‘রুপালি কন্যা’ নাটকে অভিনয় করেন তারা। 

মৌসুমী জানালেন, তিনি ছিলেন রাজশাহীতে। ফিরেছেন বিমানে। দুপুরের পর তিনি শাহজালাল বিমানবন্দরে নামেন। বাসায় না ফিরে সরাসরি শুটিংয়ে চলে এসেছেন। 

নাটকটিতে অভিনয় প্রসঙ্গে অপূর্ব বলেন, ‘গুণী অভিনেত্রী মৌসুমীর সঙ্গে অভিনয় করছি এটা আমার সৌভাগ্য। তার কাছ থেকে অনেক কিছু শিখতে পারছি। তাছাড়া ফ্যান্টাসি নির্ভর গল্পের কারণে এতে অভিনয় করতে রাজি হয়েছি।’ 

‘মিডনাইট লাভ’ নাটকের দৃশ্যে মৌসুমী ও অপূর্ব‘মিডনাইট লাভ’ নাটকের গল্পে দেখা যাবে সোহানী খান (মৌসুমী) একজন তথ্যচিত্র নির্মাতা। অন্যদিকে তমাল (অপূর্ব) বিজ্ঞানী জাভেদ চৌধুরীর (শহীদুল আলম সাচ্চু) সহকারী। ঘটনাচক্রে ২০১৭ সাল থেকে সোহানী ও তমাল ফিরে যাবে ১৯৮৪ সালে। শর্ত একটাই, তাদেরকে বর্তমানে ফিরতে হবে সাতদিনের মধ্যে। কিন্তু এরই মধ্যে সোহানী বর্তমানে ফেরার ডিভাইসটি হারিয়ে ফেলে। এর পরিণতি মহাশূণ্যে বিলীন হয়ে যাবে সে। এদিকে একটু একটু করে সোহানীকে ভালোবেসে ফেলা তমাল কী করবে? সে কী সোহানীকে ফেলে একাই ফিরে যাবে ২০১৭ সালে!

বাংলাদেশ সময়: ২০৫০ ঘণ্টা, জানুয়ারি ১৪, ২০১৬
এসও  

কাজিপুরে যুবকের বস্তাবন্দি মরদেহ উদ্ধার
রোজার প্রথম কার্যদিবসেও পুঁজিবাজারে পতন
সিরাজগঞ্জে জেএমবি সদস্যের সাড়ে ৪ বছর কারাদণ্ড
অমিত শাহের দ্বারে বিজেপি-আইপিএফটি
সিয়াম সাধনায় ফুল ফুটবে মনের জমিনে
বাধ্যতামূলক হচ্ছে কারিগরি শিক্ষা: নাহিদ
হালদাপাড়ের অবৈধ স্থাপনা ভাঙার কঠোর নির্দেশ
মির্জাপুরে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ ছিনতাইকারী নিহত
দরপতনের প্রতিবাদে রাস্তায় বিনিয়োগকারীরা
পিরোজপুরে ইয়াবা ব্যবসায়ীর কারাদণ্ড