চোখ লেগে থাকে স্পর্শীয়ার দিকে!

জান্নাতুল মাওয়া, স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

স্পর্শীয়া, ছবি: নূর-বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

রোদেলা দুপুরে উত্তরার দিয়াবাড়ির সুনসান একটি রাস্তায় তৃষ্ণার্ত হয়ে আইসক্রিম খুঁজছেন ছোটপর্দার এ সময়ের অভিনেত্রী অর্চিতা স্পর্শীয়া। জিন্স আর শর্ট হাতা শার্টে তাকে লাগছে বেশ!

রোদেলা দুপুরে উত্তরার দিয়াবাড়ির সুনসান একটি রাস্তায় তৃষ্ণার্ত হয়ে আইসক্রিম খুঁজছেন ছোটপর্দার এ সময়ের অভিনেত্রী অর্চিতা স্পর্শীয়া। জিন্স আর শর্ট হাতা শার্টে তাকে লাগছে বেশ! রাস্তাটির শেষ প্রান্তে গিয়ে একটি আইসক্রিম ভ্যান পাওয়া গেলো। স্পর্শীয়া আইসক্রিম ‍কিনলেন। চকোলেট ফ্লেভারের কোণ আইসক্রিম খেতে ভালো লাগে তার। আইসক্রিম খেতে খেতে তিনি কথা বললেন বাংলানিউজের সঙ্গে।

এখানে ঈদের একটি নাটকের কাজ করছিলেন স্পর্শীয়া। তিনি বললেন, ‘এরকম রোদের মধ্যে প্রায় প্রতিদিনই কাজ করতে হচ্ছে। ঈদুল আজহার বেশ কয়েকটি নাটকে অভিনয় করছি। এজন্য খুব ব্যস্ত সময় কাটছে। সময়ের অভাবে বেশকিছু কাজের প্রস্তাব ফিরিয়ে দিতে হয়েছে। তাছাড়া কোনো নাটকের জন্যই এক-দুইদিনের বেশি সময় দিতে পারিনি।’

স্পর্শীয়া অভিনীত ঈদ নাটকের তালিকায় আছে দুটি সাত পর্বের ধারাবাহিক। এগুলো হলো- ইমরাউল রাফাতের ‘এভারগ্রিন ১৮’ (একুশে টিভি), এসএ হক অলিকের ‘শ্বশুরবাড়ি মধুর হাঁড়ি’ (একুশে টিভি)। এ ছাড়া আজাদ কালামের ‘ফুঁ বাবা’ (মাছরাঙা টিভি), সেতু আরিফের ‘পাখির ডানায় ভর’ (আরটিভি), নিলয় মাসুদের ‘আতঙ্কিত মুন্না’ (বৈশাখী টিভি), মারুফ মিঠুর ‘বাবলু ভাই’(বাংলাভিশন), অনন্য ইমনের ‘ফাইন টুইন’ (মাছরাঙা টিভি) নাটকগুলো উল্ল্যেখযোগ্য।

দিয়াবাড়ির এ জায়গাটার কোথাও কোনো গাছপালার ছায়া নেই। তীব্র রোদের মধ্যে কোনোরকম শট দেওয়া শেষে স্পর্শীয়া উঠে বসলেন গাড়িতে। বাকি কথা হলো শীতাতপ নিয়ন্ত্রণ ব্যবস্থায় বসে। মেকআপ ঠিক করতে করতে তিনি বললেন, ‘আমার ক্যারিয়ারের বয়স ছয় বছর। এখনও প্রতিদিন শুটিং সেটে মনে হয় এবারই প্রথম এলাম! প্রতিটি চরিত্রে অভিনয়ের সময় নিজেকে নতুনভাবে আবিষ্কার করি। এবারের ঈদের প্রতিটি নাটকেই আমার অভিনীত চরিত্রগুলো পুরোপুরি আলাদা। এসবের বেশিরভাগেই গুণী অভিনেতাদের সহশিল্পী হিসেবে পাওয়ায় অনেক কিছু শিখেছি।’

‘বাবলু ভাইয়া’ নাটকের প্রথমবার অভিনেতা সালাউদ্দিন লাভলুর সঙ্গে কাজ করার অভিজ্ঞতা জানিয়ে স্পর্শীয়া বললেন, “তার সঙ্গে পুবাইলের একটি শুটিংয়ে একবার দেখা হয়েছিলো অনেকদিন আগে। তখন তেমনভাবে কথাও হয়নি। ‘বাবলু ভাইয়া’র শুটিংয়ের প্রথম দিন তাকে বলেছিলাম- ভাইয়া ভুল হলে আমাকে ধরিয়ে দেবেন। তিনি আসলে মাটির মানুষ। সেটে তাকে সবসময় মহড়া করতে দেখেছি। এমন গুণী অভিনেতাকে সহশিল্পী হিসেবে পেলে অভিনয়ে নিজের দায়িত্ববোধও বেড়ে যায় অনেকাংশে। ভালো করতেই হবে- এমন একটা স্পৃহা কাজ করে নিজের মধ্যে। তিনি আমাকে বললেন, ‘তোমার অভিনয় দেখে আমি নিজেই নার্ভাস হয়ে যাচ্ছি!’ এ কথাটা শোনার পর সত্যিই আবেগাপ্লুত হয়েছি।”

এদিকে দীর্ঘ দুই বছর পর অভিনেতা রওনক হাসানের সঙ্গে আবার অভিনয় করেছেন স্পর্শীয়া। তার প্রত্যাশা, ‘এতোদিন পর আমাদেরকে একফ্রেমে দেখা দর্শকের কাছে উপভোগ্য হবে।’

ঈদ নাটকগুলোর মধ্যে কয়েকটির আলাদা অভিজ্ঞতা জানিয়ে স্পর্শীয়া বললেন, “ফুঁ বাবা নাটকে ময়মনসিংয়ের আঞ্চলিক ভাষায় সংলাপ বলতে হয়েছে। এটা আমার জন্য নতুন অভিজ্ঞতা। এ ছাড়া ‘পাখির ডানায় ভর’ নাটকে নিজের চরিত্রই উপস্থাপন করেছি। এতে আমার চরিত্রের নাম স্পর্শীয়া। মেয়েটি মডেল ও অভিনেত্রী। বেশ উপভোগ করেছি কাজটি।”

নাটকের পাশাপাশি ঈদ উপলক্ষে নির্মিত দুটি মিউজিক ভিডিওতে মডেল হিসেবে হাজির হয়েছেন স্পর্শীয়া। এগুলো হলো- তানিম মাহমুদের ‘ছোঁয়ার অসুখ’, ভারতীয় শিল্পী পাপন ও দোলার ‘মন দরিয়া’। এ ছাড়া কয়েকটি বিজ্ঞাপনচিত্রেও কাজ করেছেন তিনি। স্পর্শীয়ার ভাষ্য, ‘মিউজিক ভিডিও আর বিজ্ঞাপনে আমি নিয়মিত নই। তবে এগুলোর প্রচারণা তুলনামূলকভাবে বেশি হয়। এজন্য ভালো মনে হলে কাজ করি।’
 
নাটক, টেলিছবি, মিউজিক ভিডিও, বিজ্ঞাপনচিত্রের মাধ্যমে ছোটপর্দায় বাজিমাত করে চলছেন স্পর্শিয়া। কাজ করেছেন কয়েকটি স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্রেও। এ সময়ের তারকাদের মধ্যে তার ক্রমে এগিয়ে চলাটা চোখে পড়ার মতো। বড়পর্দায় কবে যাত্রা শুরু করবেন জানতে চাইলে তিনি বললেন, ‘ঈদের পর বড়পর্দার জন্য অভিনয় করবো বলে ভাবছি।’
 
* ‘মন দরিয়া’ গানের মিউজিক ভিডিও:
 
বাংলাদেশ সময়: ১২০০ ঘণ্টা, সেপ্টেম্বর ১৩, ২০১৬
জেএমএস/জেএইচ

ইয়াবা-গাঁজাসহ ২ মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার
প্রতিবন্ধী হয়েও জনপ্রিয় গোলকিপার ইসমাইল
পিটারসেনকে নিয়ে ‘দ্বন্দ্বে’ ভারতীয় বোর্ড
বিশ্বকাপ যাদের মিস করবে
কাপ্তাই হ্রদে কার্প জাতীয় মাছের পোনা অবমুক্ত
রমজানে রেডিসনের বিশেষ আয়োজন
ময়মনসিংহে জেএমবির নারী সদস্য আটক
৮ জুনের আগে সব সড়ক সচল করার নির্দেশ 
নোটিশের নামে ঢাবি ছাত্রীদের হয়রানি না করার আহ্বান
বাজেটে বিড়িবিরোধী সিদ্ধান্ত নিলে কঠোর আন্দোলন