স্কুল মাঠে দূষিত পানি-কচুরিপানা, শিক্ষার্থীদের দুর্ভোগ

মো. রাজীব সরকার, স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

গত ছয় মাস ধরে স্কুলের মাঠে জমে আছে আশপাশের বাসা বাড়ি, শিল্প কারখানা ও বাজারের দূষিত পানি। ছবি: বাংলানিউজ

গাজীপুর: গত ছয় মাস ধরে গাজীপুর সিটি করপোরেশনের ৩৭ নং নাওজোর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় মাঠে জমে আছে বাসা বাড়ির, শিল্প কারখানা ও বাজারের দূষিত পানি।

স্কুল মাঠের দূষিত পানিতে জমেছে শেওলা ও কচুরিপানা। এতে স্কুল মাঠে শিক্ষার্থীদের খেলাধুলা করা বন্ধ হয়ে গেছে। দুর্ভোগে পড়েছে ওই স্কুলের পাঁচ শতাধিক শিশু শিক্ষার্থীরা।

স্কুল ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা গেছে, গাজীপুর সিটি করপোরেশনের ১৩ নং ওয়ার্ডের নাওজোর এলাকায় ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়কের পাশে অবস্থিত ৩৭ নং নাওজোর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়।

বিদ্যালয়টি ১৯১১ সালে স্থাপিত হয়েছে। এ বিদ্যালয়ে পাঁচ শতাধিক শিক্ষার্থী রয়েছে। শিক্ষক রয়েছে ১১জন।গত ছয় মাস ধরে স্কুলের মাঠে জমে আছে আশপাশের বাসা বাড়ি, শিল্প কারখানা ও বাজারের দূষিত পানি। ছবি: বাংলানিউজগত ছয় মাস ধরে স্কুলের মাঠে জমে আছে আশপাশের বাসা বাড়ি, শিল্প কারখানা ও বাজারের দূষিত পানি। এতে স্কুল মাঠটি দূষিত পানির পাগাড়ে পরিণত হয়েছে। স্কুল মাঠের দূষিত পানিতে জন্মেছে শেওলা ও কচুরিপানা। এতে স্কুল মাঠে শিক্ষার্থীদের খেলাধুলা ও চলাফেরা করা বন্ধ হয়ে গেছে। মাঠে দূষিত পানির গন্ধে দুর্ভোগে পড়েছে ওইসব শিক্ষার্থীরা। বৃষ্টি আসলে ক্লাসরুমে পানি জমে। এ সময় শিক্ষার্থীদের স্কুলে যাওয়া বন্ধ হয়ে যায়।

সরেজমিনে দেখা গেছে, গাজীপুর সিটি করপোরেশনের ১৩ নং ওয়ার্ডের নাওজোর এলাকায় অবস্থিত ৩৭ নং নাওজোর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়।

বিদ্যালয়ের উত্তর পাশে অফিস ভবন, দক্ষিণ ও পশ্চিম পাশে আধাপাকা শ্রেণীকক্ষ। পূর্বপাশে হাঁটার রাস্তা। এর মাঝে দূষিত পানি জমে থাকা স্কুলের মাঠ। এতে জন্মেছে কচুরিপানা ও শেওলা। মাঠে জমা পানিতে পড়ে রয়েছে বিভিন্ন আবর্জনা। স্কুলটির উত্তর পাশে ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়ক ও বাজার এবং দক্ষিণে ঢাকা বাইপাস সড়ক।

স্কুলের প্রধান শিক্ষিকা শাহানা পারভীন জানান, স্কুলের মাঠটি নিচু থাকায় শিল্প কারখানা, বাজার ও বাসা-বাড়ির দূষিত পানি স্কুলমাঠে এসে জমে থাকে।

গত বর্ষা মৌসুমে শ্রেণী কক্ষে পানি জমে শিক্ষার্থীদের স্কুলে আসা বন্ধ হয়ে যায়। এ স্কুলটি ‘এ’ গ্রেডের থাকলেও পড়াশোনার পরিবেশ নষ্ট হয়ে যাচ্ছে। মাঠে শিক্ষার্থীরা খেলাধুলা করতে পারছে না।

বিষয়টি গাজীপুর সদর উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা হারুন অর রশিদ ও সহকারী শিক্ষা কর্মকর্তা শরীফ উদ্দিন স্যারকে জানানো হয়েছে। মাঠে দূষিত পানি জমে থাকায় প্রতিনিয়ত দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে শিক্ষক ও শিক্ষার্থীদের। গত ছয় মাস ধরে স্কুলের মাঠে জমে আছে আশপাশের বাসা বাড়ি, শিল্প কারখানা ও বাজারের দূষিত পানি। ছবি: বাংলানিউজএ ব্যাপারে স্কুলের সভাপতি আব্দুল বারেক সরকার বলেন, ‘বৃষ্টির পানি, বাসা বাড়ির পানি, ও বাজারের পানির ড্রেন ও পাইপ বন্ধ হয়ে গেছে। যার ফলে স্কুলের মাঠে জমা থাকা পানি নামতে পারছে না। স্কুলের মাঠটি নিচু থাকায় ওইখানে পানি জমছে। এতে শিক্ষার্থীদের দুর্ভোগ হচ্ছে। আমরা নিজেরা চেষ্টা করছি এ সমস্যার সমাধান করতে। তবে সকলের সহযোগিতা প্রয়োজন।

স্থানীয় কাউন্সিলর খোরশেদ আলম সরকার বলেন, আমার কিছু করার নাই। স্কুলের কমিটি আছে, লোক আছে তাদের সঙ্গে কথা বলেন।

বাংলাদেশ সময়: ১৬২৪ ঘণ্টা, জানুয়ারি ০৪, ২০১৮
আরএস/এএটি

৩ মাস নয়, ডিএনসিসি নির্বাচন ৬ মাস স্থগিত
ছাত্রলীগ-নিপীড়ন বিরোধী শিক্ষার্থীদের সংঘর্ষে আহত ৫০
মনপুরা দ্বীপে মানসম্মত চিকিৎসা
কর্কটের নতুন বন্ধু লাভ, কুম্ভের সুখবরের সম্ভাবনা
সংস্কৃতি ও শিশুসংগঠক দেবাশীষ রায়ের বাবার মৃত্যু
‘খালেদা জিয়া জেলে যাবেন’
নবীর তরবারি জুলফিকারের রেপ্লিকা মালাক্কায়
ক্রেডিটটা মোস্তাফিজ-সানজামুলদেরই দিলেন তামিম
মাইজভাণ্ডারীর ওরশে লাখো ভক্তের ঢল
মালয়কন্যার সঙ্গে রাতের পুত্রাজায়া




Alexa