বাজারে রুপালি ইলিশের সোনার দাম

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

ইলিশের ঢালা নিয়ে বসেছেন মাছ বিক্রেতা। ছবি: বাংলানিউজ

ঢাকা: বছর ঘুরে আবার এসেছে বর্ষাকাল। সেসঙ্গে ঢাকার বাজারে পাওয়া যাচ্ছে রুপালি ইলিশ। ছোট- মাঝারি সব আকারের মাছ পাওয়া গেলেও দাম একটু চড়া।

শুক্রবার (৬ জুলাই) সকালে রাজধানীর কারওয়ান বাজারে ইলিশের আড়ত ঘুরে দেখা গেছে, ইলিশ আসছে। তবে 'আমদানি' কম। যে কারণে চাহিদার বিপরীতে দাম কিছুটা বেশি।

আড়তদাররা বলছেন, বর্তমানে বাজারে কেবল চাঁদপুরের হাইমচরের ইলিশ ধরা পড়ছে। বরিশালের ইলিশ আসবে আরও ৮-১০ দিন পর।

কারওয়ান বাজারে হাতে গোনা কয়েকজন মাছ বিক্রেতাকেই দেখা গেলো ইলিশের পসরা সাজিয়ে বসেছেন। ইলিশের চাহিদা বেশি থাকায় বিক্রেতাদের মুখে হাসি।ক্রেতার কাছ থেকে টাকা নিচ্ছেন ইলিশ বিক্রেতা। ছবি: বাংলানিউজ৪শ গ্রাম ওজনের এক হালি ইলিশের দাম পড়ছে ১৬শ থেকে ১৮শ টাকা। সাড়ে ৫শ থেকে সাড়ে ৬শ গ্রাম ওজনের এক হালি মাছের দাম পড়ছে দুই হাজার থেকে ২২শ টাকা। ৭শ থেকে ৮শ গ্রাম ওজনের এক হালি মাছের দাম দিতে হচ্ছে তিন হাজার টাকা। ৯শ গ্রাম ওজনের এক হালির দাম পড়ছে সাড়ে তিন হাজার টাকা। আর এক কেজি বা তারচেয়ে একটু বেশি ওজনের এক হালির দাম হাঁকাচ্ছেন বিক্রেতারা আট হাজার টাকা। এরচেয়ে বড় তেমন একটা নজরে আসেনি।

শুক্কুর আলী নামে এক মাছ বিক্রেতা বাংলানিউজকে জানান, মাছের আমদানি কম। কেবল চাঁদপুরের মাছ আসছে। চাহিদা বেশি তাই দাম বেশি। এক সপ্তাহ পর ইলিশের দাম কিছুটা কমবে।

হাসান আলী নামে মাছ বিক্রেতা জানান, এখনও ইলিশের পুরো মৌসুম শুরু হয়নি। ১৫ দিনের মধ্যে ইলিশের বাজার রমরমা হয়ে যাবে।

ক্রেতা রোজিনা বেগম বাংলানিউজকে জানান, বাজারের ইলিশের দাম কিছুটা বেশি। তাই তিনি ৬শ গ্রাম ওজনের দুটো নিয়েছেন ১১শ টাকায়।

বাংলাদেশ সময়: ১০৪০ ঘণ্টা, জুলাই ৬, ২০১৮
ইইউডি/এএটি

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন: ইলিশ
মিয়ানমার সংলাপে আছে, কাজে নেই: প্রধানমন্ত্রী
সেমগ্রুপের প্রীতি ক্রিকেট ম্যাচ
খুলনা শিল্পকলার নির্মাণাধীন ভবন পরিদর্শনে এমপি মিজান
শাহজালালের ইমিগ্রেশন অফিসে আগুন, নিয়ন্ত্রণে ৭ ইউনিট
মিয়ানমারে প্রত্যাবাসনের পরিবেশ এখনও তৈরি হয়নি 
চুয়েটে ইনটেলিজেন্স অ্যান্ড মেশিন লার্নিং বিষয়ক সেমিনার
তজুমদ্দিনে জোয়ারে প্লাবিত ৩ গ্রাম
অস্তিত্ব টিকিয়ে রাখতেই নির্বাচনে অংশ নেবে বিএনপি
ইবিতে নিয়োগ বাণিজ্যের অডিও ফাঁসে তদন্ত কমিটি
বেনাপোল বন্দর তদারকিতে বিজিবি, প্রতিবাদে কার্যক্রম বন্ধ