ছাড়ে বাড়ছে দর্শনার্থী

শরিফুল ইসলাম জুয়েল, স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

বাণিজ্যমেলায় বিভিন্ন পণ্যে ছাড় দেওয়া হচ্ছে-ছবি-কাশেম হারুন

ঢাকা: ঢাকা আন্তর্জাতিক বাণিজ্যমেলার ২৩ তম আসরের শুরু থেকেই ক্রেতা আকর্ষণের জন্য নানা পন্থা অবলম্বন করছেন দেশি-বিদেশি বিভিন্ন স্টল-প্যাভিলিয়ন মালিকেরা।

কেউ দিচ্ছেন নগদ ছাড়, কেউ বিশেষ অফার, আবার কেউ একটা কিনলে একটা ফ্রি, কেউবা দিচ্ছেন পণ্য কিনলেই আকর্ষণীয় উপহার।
 
বুধবার (১০ জানুয়ারি) বাণিজ্যমেলার ১০ তম দিনে মেলা প্রাঙ্গণ ঘুরে ছাড়ের এমন ছড়াছড়ি দেখা গেছে। বেশিরভাগ ক্রেতাই ঝুঁকছেন ছাড়ের স্টল-প্যাভিলিয়নে।
 
স্টলগুলোতে দেখা গেছে, ক্রেতা আকর্ষণে কেউ দিচ্ছে ১০ শতাংশ, কেউ ১৫ শতাংশ, কেউ আবার ৫০ শতাংশ পর্যন্ত ছাড়। আবার কেউ উপহার সামগ্রী দিচ্ছে। ফলে বেচাকেনাও বেশ ভালো হচ্ছে বলে জানান গার্মেন্টস সামগ্রী বিক্রেতা উইনার প্যাভিলিয়নের বিক্রয় কর্মী রাজু।
 
রাজু বাংলানিউজকে বলেন, আমাদের প্রতিটি পণ্যেই ৫-৫০ শতাংশ পর্যন্ত ছাড় আছে। আবার মেনস আন্ডার গার্মেন্টস পণ্যের দুটি কিনলে একটি ফ্রি দিচ্ছি। এতে ক্রেতা বাড়ছে। তবে গত দুইদিন  শীতের কারণে সন্ধ্যার পরেই মেলার মাঠ ফাঁকা হয়ে গেছে। আবার সকালেও ফাঁকা ছিলো। বেলা ১২টার আগে জমে ওঠেনি। তবুও ছাড়ের কারণে আমাদের ক্রেতা ভালোই ছিলো।
 
এছাড়া মেলায় ইলেকট্রনিকস পণ্যের মধ্যে টেলিভিশন, রেফ্রিজারেটর, ওয়াশিং মেশিন, এয়ারকন্ডিশনার, মাইক্রোওয়েভ ওভেন, ব্লেন্ডার, টোস্টার, রাইস কুকারসহ বিভিন্ন হোম অ্যাপ্লায়েন্সেও ৫-৩০ শতাংশ পর্যন্ত ছাড় দিতে দেখা গেছে। আবার কিস্তিতে নেওয়ারও সুযোগ দিচ্ছে কোনো কোনো প্রতিষ্ঠান।

বাণিজ্যমেলায় বিভিন্ন পণ্যে ছাড় দেওয়া হচ্ছে-ছবি-কাশেম হারুন
দেশি ব্র্যান্ড ওয়ালটন প্যাভিলিয়নের বিক্রয় কর্মী আর কে হারুন বাংলানিউজকে বলেন, আমাদের স্টলে পণ্যভেদে বিভিন্ন ছাড় রয়েছে। প্রতিটি আয়রন মেশিনে আপনি ২০ শতাংশ ছাড় পাবেন। অন্য সময়ে আমাদের যে পণ্যটি ১ হাজার ৭৫০ টাকায় কিনতে হতো মেলায় সেটি ১ হাজার ৪০০ টাকায় দিচ্ছি। এজন্য ক্রেতাও বেশি পাচ্ছি।
 
ক্রেতা জেসমিন সুমি বাংলানিউজকে বলেন, মেলা মানেই ছাড়, মেলা মানেই উপহার। ছাড় না থাকলে এতো কষ্ট করে ভিড় ঠেলে মেলায় কেন আসবো, শো-রুম থেকেই কিনতে পারতাম। মেলায় সবাই কিছু না কিছু ছাড় আর উপহারের জন্যই পণ্য কিনতে আসে।
 
মেলায় গৃহস্থালি পণ্য, মশলা, জুতা খাদ্যদ্রব্য নিয়ে আরএফএল প্লাস্টিক, প্রাণ, ওয়াকার, ও ইতালিয়ানোর কয়েকটি প্যাভিলিয়ন রয়েছে প্রাণ আরএফএল গ্রুপের।
 
ওয়াকার প্যাভিলিয়নের ম্যানেজার খায়রুল ইসলাম বাংলানিউজকে বলেন, আমাদের স্টলে বিভিন্ন পণ্যে ১০-৫০ শতাংশ মূল্য ছাড় দেওয়া হচ্ছে। এছাড়া বিভিন্ন উপহারও থাকছে।
 
এছাড়া বিভিন্ন ব্লেজারের স্টলগুলোতেও দেখা গেছে ব্যাপক মূল্য ছাড়। এসব স্টলে ১ হাজার ২০০ টাকা থেকে ৩ হাজার ২০০ টাকার মধ্যে পছন্দের ব্লেজার বেছে নেওয়ার সুযোগ রয়েছে। মেয়েদের জুতা ও থ্রি-পিসের স্টলগুলোতে একটির সঙ্গে একটি ফ্রি, মূল্যছাড়, উপহারসহ বিভিন্ন অফার দিতে দেখা গেছে।
 
বাংলাদেশ সময়: ২১২৮ ঘণ্টা, জানুয়ারি ১০, ২০১৮
এসআইজে/আরআর

ময়মনসিংহে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ মাদক বিক্রেতা নিহত
অস্ট্রেলিয়ার হয়ে বিশ্বকাপে বুলবুলের ছেলে
 কুষ্টিয়ায় ‘বন্দুকযুদ্ধে’ মাদক ব্যবসায়ী নিহত
বৃষ্টির সন্ধ্যায় সবজি পাকোড়া 
উন্মাতাল ফ্রান্স ড্রেসিংরুম
ভিডিও কনফারেন্সে চলছে বিএনপি
লন্ডন ঘোরাঘুরি শেষে মুম্বাই ফিরলেন সাইফ-কারিনা-তৈমুর
সুপারস্টারদের বিপরীতে আমাকে কখনও নেওয়া হয় না: তাপসী
প্রিয়াঙ্কার জন্মদিনে প্রেমিকের বিশেষ পরিকল্পনা
এক নজরে সব বিশ্বকাপের জয়ী যারা