বাণিজ্য মেলায় চারদিনে ১৫ প্রতিষ্ঠানকে জরিমানা

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

বাণিজ্যমেলায় জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদফতরের অস্থায়ী অফিস

ঢাকা: ঢাকা আন্তর্জাতিক বাণিজ্য মেলা শুরুর দিন (০১ জানুয়ারি) থেকে ৪ জানুয়ারি পর্যন্ত চারদিনে জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদফতর বিভিন্ন অভিযোগে ১৫টি প্রতিষ্ঠান থেকে এক লাখ ৫১ হাজার টাকা জরিমানা আদায় করেছে।

বাণিজ্য মেলার ভেতরে অধিদফতরের অস্থায়ী কার্যালয়ে দায়িত্বরত কর্মকর্তারা এ জরিমানা করেন বলে জানান সহকারী পরিচালক (গবেষণাগার) প্রণব কুমার প্রামাণিক।

শুক্রবার (০১ জানুয়ারি) প্রণব কুমার বাংলানিউজকে বলেন, ১ থেকে ৪ জানুয়ারি পর্যন্ত এসব জরিমানা আদায় করা হয়েছে। তবে শুক্রবার দুপুর ২টা পর্যন্ত কোনো অভিযোগ পাওয়া যায়নি।

তিনি বলেন, আমাদের সহকারী পরিচালক পদবীর তিনজন কর্মকর্তা দুই শিফটে সকাল ১১টা থেকে রাত ১০টা পর্যন্ত মেলায় দায়িত্বে থাকেন।  পণ্য ক্রয় করে কোনো ক্রেতা যদি প্রতারিত হন তাহলে আমাদের দায়িত্বরত কর্মকর্তার কাছে নির্ধারিত ফরমে অভিযোগ করলে তাৎক্ষণিক ব্যবস্থা নেয়া হয়।   

যেসব প্রতিষ্ঠানকে জরিমানা করা হয়েছে সেগুলো হলো- পণ্য বিক্রি করে অন্য প্রতিষ্ঠানের রশিদ দেয়ার অভিযোগে ড্রিম হাউস লেকভিউ রেস্টুরেন্টকে ১০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। অভিযোগকারীকে তাৎক্ষণিক ২৫ শতাংশ অর্থাৎ ২ হাজার ৫০০ টাকা পুরস্কার দেওয়া হয়।

প্রতিশ্রুতি অনুযায়ী পণ্য না দেয়ার অভিযোগে শারমিন ইলেক্ট্রনিক্সকে ১০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। মিথ্যা বিজ্ঞাপন দিয়ে ক্রেতাদের প্রতারিত করার অভিযোগে সাইদ এন্টারপ্রাইজকে ১০হাজার টাকা জরিমানা করা হয় এবং মিথ্যা বিজ্ঞাপন থেকে বিরত থাকতে সতর্ক করা হয়।

পণ্যের মোড়কে খুচরা মূল্য লেখা না থাকায় প্রসাধন সামগ্রী বিক্রির প্রতিষ্ঠান ‘হোয়াইট হাউজ’ কর্তৃপক্ষকে পাঁচ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। একই অভিযোগে একটি মিষ্টান্ন প্রতিষ্ঠানকে ২০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।

নির্ধারিত দামের চেয়ে অতিরিক্ত মূল্য রাখায় বাংলাদেশ পর্যটন করপোরেশন পরিচালিত মালঞ্চ রেস্টুরেন্টকে ১০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।

মেহেদি হাসান প্রিন্স নামে একজনের অভিযোগের ভিত্তিতে অতিরিক্ত মূল্যে পণ্য বিক্রির অভিযোগে ‘ক্যাফে সামস’ কর্তৃপক্ষকে ২০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। অভিযোগকারী ২৫ শতাংশ অর্থাৎ পাঁচ হাজার টাকা পুরস্কার পান।

মিথ্যা বিজ্ঞাপন দিয়ে ক্রেতাদের প্রতারিত করায় নোহা সার্ভিসিং কোম্পানিকে ২০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। বিক্রির উদ্দেশে মিথ্যা বিজ্ঞাপন দেয়ায় সমতা ট্রেডার্সকে ২০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। এছাড়া মিথ্যা বিজ্ঞাপন দেয়ায় ‘নিউ ফ্যামিলি ট্রেডার্সকে ২০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।

পণ্যের গায়ে মূল্য লেখা না থাকায় এলকো লিমিটেডকে ২ হাজার টাকা, পাকিস্তানি প্যাভেলিয়নের ১২ নম্বর স্টলকে ৩ হাজার, কোরিয়ান কালেকশনকে ২ হাজার, ইরানি পণ্য সম্ভারকে ২ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।

এছাড়া ২৩ টাকার কোল্ড ড্রিংকস ২৫ টাকায় বিক্রি করা ও ক্রেতার সঙ্গে অসদাচরণ করার কারণে আবুল হোটেলকে ২ হাজার টাকা জরিমানা করে ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর।

বাংলাদেশ সময়: ২০১৫ ঘণ্টা, জানুয়ারি ০৫, ২০১৮
এমএইচ/এসএইচ 

মিরপুর-২: উন্নয়ন না দুর্ভোগ প্রশ্ন এলাকাবাসীর
সৌদির উদ্দেশে ঢাকা ছেড়েছে বছরের প্রথম হজ ফ্লাইট
রাবিতে রবীন্দ্র-নজরুল জয়ন্তী
না’গঞ্জে স্ত্রীকে হত্যার পর স্বামী পলায়ন
বিএনপি নেতাদের দেখে মনেই হয় না নেত্রী জেলে!
ডাকসু নির্বাচন: শিক্ষার্থীদের ডাটাবেজ তৈরি করছে ঢাবি
না’গঞ্জে হাসপাতালে যুবকের মরদেহ রেখে পলায়ন
কিশোরগঞ্জে ২ মাদক বিক্রেতার দুই বছরের দণ্ড
ব্যাটসম্যানদের ব্যর্থতায় ম্লান মিরাজ নৈপুণ্য
অন্তর্বাস দিয়ে মুখ লুকিয়ে চুরি!