সূচক ও লেনদেন উভয়ই বেড়েছে

36 | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

দেশের প্রধান শেয়ারবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই) ও চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) সপ্তাহের দ্বিতীয় কার্যদিবস মঙ্গলবার মূল্যসূচক বৃদ্ধি পেয়ে লেনদেন শেষ হয়েছে। পাশাপাশি উভয় স্টক এক্সচেঞ্জের লেনদেনও বৃদ্ধি পেয়েছে।

ঢাকা: দেশের প্রধান শেয়ারবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই) ও চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) সপ্তাহের দ্বিতীয় কার্যদিবস মঙ্গলবার মূল্যসূচক বৃদ্ধি পেয়ে লেনদেন শেষ হয়েছে। পাশাপাশি উভয় স্টক এক্সচেঞ্জের লেনদেনও বৃদ্ধি পেয়েছে।
 
উল্লেখ, রোববার দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হওয়ায় উভয় স্টক এক্সচেঞ্জে লেনদেন বন্ধ ছিল।
 
মঙ্গলবার ডিএসইতে মোট লেনদেন হয়েছে ৪৫৬ কোটি ১২ লাখ টাকা। গত সোমবার লেনদেন হয়েছিল ৩১৫ কোটি ৬২ লাখ টাকার শেয়ার ও মিউচ্যুয়াল ফান্ড।
 
সিএসইতে মোট লেনদেন হয়েছে ৪৫ কোটি ২২ লাখ টাকার। গত সোমবার লেনদেন হয়েছিল ৩২ কোটি ৫০ লাখ টাকার শেয়ার ও মিউচ্যুয়াল ফান্ড।

মঙ্গলবার ডিএসইতে খাতভিত্তিক লেনদেনে জ্বালানি খাতের অবদান প্রায় ১৫ দশমিক ৭৪ শতাংশ, টেক্সটাইল খাতের ১৩ দশমিক ৯১ শতাংশ, মিউচ্যুয়াল ফান্ড ১ দশমিক ৭৫ শতাংশ, টেলিকমিউনিকেশন খাত ২ দশমিক ৪০ শতাংশ, আর্থিক প্রাতিষ্ঠান খাত প্রায় ০৯ দশমিক ০১ শতাংশ, ব্যাংক ৬ দশমিক ৯৯ শতাংশ, ওষুধ ও রসায়ন খাত প্রায় ৮ দশমিক ৮৬ শতাংশ, প্রকৌশল ১৮ দশমিক ১১ শতাংশ, খাদ্য ও আনুষঙ্গিক ৪ দশমিক ১৬ শতাংশ এবং ইন্স্যুরেন্স খাতের অবদান ৪ দশমিক ২৯ শতাংশ।
 
এদিন লেনদেন শুরুর প্রথম ৫ মিনিট পর সকাল ১০টা ৩৫ মিনিটে ডিএসই’র সাধারণ সূচক ৬ পয়েন্ট বৃদ্ধি পেয়ে লেনদেন শুরু হয়। এরপর সূচক একটানা বৃদ্ধি পেতে থাকে। ১০টা ৪০ মিনিটে সূচক ১০ পয়েন্ট, ১০টা ৪৫ মিনিটে সূচক ১২ পয়েন্ট, ১০টা ৫০ মিনিটে সূচক ২০ পয়েন্ট, ১০টা ৫৫ মিনিটে সূচক ২২ পয়েন্ট, বেলা ১১টায় সূচক ২৭ পয়েন্ট, দুপুর ১২টায় সূচক ২৩ পয়েন্ট, দুপুর ১টায় সূচক ২৪ পয়েন্ট বৃদ্ধি পায়।

লেনদেন শেষে ডিএসইএক্স সূচক ৩৪ পয়েন্ট বৃদ্ধি পেয়ে অবস্থান করে ৪ হাজার ৩৩০ পয়েন্টে।
 
এদিকে, ডিএসই-৩০ সূচক ১০ পয়েন্ট বৃদ্ধি পেয়ে অবস্থান করে ১ হাজার ৫১৬ পয়েন্টে।
 
লেনদেন শেষে ডিএসইতে ২১২টি প্রতিষ্ঠানের দাম ও সাধারণ সূচক বৃদ্ধি পেয়েছে ৩৪ পয়েন্ট। লেনদেন হয়েছে ৪৫৬ কোটি ১২ লাখ টাকার শেয়ার ও মিউচ্যুয়াল ফান্ডের ইউনিট।
 
ডিএসই’র ওয়েবসাইট সূত্রে এসব তথ্য জানা গেছে।
 
ডিএসইতে লেনদেন হওয়া প্রতিষ্ঠানগুলোর মধ্যে দাম বৃদ্ধি পেয়েছে ২১২টির, কমেছে ৪৬টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ২৮টির দাম।
 
লেনদেনের ভিত্তিতে (টাকায়) ডিএসইর শীর্ষ দশ কোম্পানির তালিকায় রয়েছে- সামিট পূর্বাঞ্চল পাওয়ার, গোল্ডেন সন, লংকা-বাংলা ফিন্যান্স, সামিট পাওয়ার, জেনারেশন নেক্সট, অ্যাপেক্স ডেল্টা ফিন্যান্স, ওরিয়ন ফার্মা, অ্যাপোলো ইস্পাত, বরকতউল্লাহ ইলেকট্রো ডায়নামিক এবং গ্রামীণ ফোন।
 
অন্যদিকে, লেনদেন শেষে চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের (সিএসই) সাধারণ সূচক (সিএসইএক্স) ৭১ পয়েন্ট বৃদ্ধি পেয়ে ৮ হাজার ৫০৮ পয়েন্টে, সিএসই-৩০ সূচক ৭০ পয়েন্ট বৃদ্ধি পেয়ে ১১ হাজার ৬ পয়েন্টে এবং সিএএসপিআই সূচক ১১৭ পয়েন্ট বৃদ্ধি পেয়ে ১৩ হাজার ৪২৮ পয়েন্টে অবস্থান করে।
 
দিনশেষে সিএসইতে লেনদেন হয়েছে মোট ৪৫ কোটি ২২ লাখ টাকার শেয়ার ও মিউচ্যুয়াল ফান্ডের ইউনিট।
 
বাংলাদেশ সময়: ১১২৭ ঘণ্টা, জানুয়ারি ০৭, ২০১৪/আপডেট: ১৫৪০ ঘণ্টা
সম্পাদনা: জনি সাহা, নিউজরুম এডিটর

মাধবপুরে এক ব্যক্তির গলিত মরদেহ উদ্ধার
জাতীয় ঈদগাহে ৫ স্তরের নিরাপত্তা
বিমানবন্দর স্টেশনেও উপচে পড়া ভিড়
অ্যাকাউন্ট হ্যাক করে ৩৬ প্রসূতির টাকা লোপাটের অভিযোগ
বংশালে ছুরিকাঘাতে আহত যুবকের মৃত্যু
বাছাইপর্বে বাদ পড়লেন জাকিয়া-রত্না
কামারখন্দে সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ১
পাবনায় বহুতল ভবনে আগুন, পুড়ে গেছে ২০ দোকান 
মানুষের মনে ঈদের আনন্দ নেই: রিজভী
জামিন মিললো নিরাপদ সড়ক আন্দোলনের আরও ৩ শিক্ষার্থীর