১১৬৮ টিইইউস কনটেইনার না নিয়ে বন্দর ছেড়েছে ৫ জাহাজ

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

চট্টগ্রাম বন্দরের সাম্প্রতিক অবস্থা ও ঈদুল আজহার প্রাক্কালে চট্টগ্রামের পোশাক শিল্পের সার্বিক পরিস্থিতি জানাতে আয়োজিত জরুরি মতবিনিময় সভা

চট্টগ্রাম: বাংলাদেশ পোশাক প্রস্তুতকারক ও রপ্তানিকারক সমিতির (বিজিএমইএ) প্রথম সহ-সভাপতি মঈনুদ্দিন আহমেদ মিন্টু বলেছেন, নিরাপদ সড়ক চাই প্রতিবাদ ও পরিবহন শ্রমিকদের ধর্মঘটের সাত দিনের মধ্যে ৫ আগস্ট চট্টগ্রাম বন্দর থেকে ১ হাজার ১৬৮ বক্স কনটেইনার ছাড়াই পাঁচটি জাহাজ চলে গেছে। 

বুধবার (০৮ আগস্ট) সমিতির চট্টগ্রাম আঞ্চলিক কার্যালয়ে চট্টগ্রাম বন্দরের সাম্প্রতিক অবস্থা ও ঈদুল আজহার প্রাক্কালে চট্টগ্রামের পোশাক শিল্পের সার্বিক পরিস্থিতি জানাতে আয়োজিত জরুরি মতবিনিময় সভায় তিনি এসব কথা বলেন। 

তিনি বলেন, ফেলে যাওয়া কনটেইনারের বিপরীতে বায়াররা ডিসকাউন্ট ও এয়ার শিপমেন্ট চাইছে।

তিনি বলেন, বন্দরের ধারণক্ষমতা ৪৮ হাজার টিইইউস। দুই বছর আগে ধারণক্ষমতা ছিল ৩৭ হাজার টিইইউস। মঙ্গলবার (৭ আগস্ট) কনটেইনার ছিল ৪৩ হাজার ৫০৭ টিইইউস।

প্রধানমন্ত্রীকে ধন্যবাদ জানিয়ে তিনি বলেন, চট্টগ্রাম বন্দরের সীমাবদ্ধতা সত্ত্বেও প্রধানমন্ত্রী রপ্তানির ক্ষেত্রে সপ্তাহে সাত দিন বন্দর, কাস্টম, ব্যাংক, বিমাসহ লজিস্টিক সাপোর্টের ব্যবস্থা করেছেন। বন্দরের সক্ষমতা আরও বাড়াতে হবে। বে টার্মিনালের নির্মাণকাজ দ্রুত শুরু করতে হবে।

সভায় উপস্থিত ছিলেন বিজিএমইএর সহ-সভাপতি মোহাম্মদ ফেরদৌস, পরিচালক মো. সাইফ উল্লাহ, আমজাদ হোসেন চৌধুরী প্রমুখ।

বাংলাদেশ সময়: ১৪৩১ ঘণ্টা, আগস্ট ০৮, ২০১৮
এআর/টিসি

নদীপথে আসছে গরু, চাঁদাবাজিরোধে নিরাপত্তার দাবি
নওগাঁয় হাজতির মৃত্যু
ছেলের পছন্দ বিবিএ, বাবা-মায়ের ইংরেজি!
নীলফামারীতে ঈদুল আজহার প্রথম জামাত ৮টায়
প্রধানমন্ত্রীর কাছে ১০ মিনিট সময় চেয়েছেন ড. কামাল
নির্দিষ্ট সময়ে ঘাট ছাড়ছে না কোনো লঞ্চ
ফুলবাড়িয়ায় পানিতে ডুবে ২ শিশুর মৃত্যু
তিন মাসের জন্য মাঠের বাইরে ডি ব্রইনা
যানবাহনের চাপ কমেছে পাটুরিয়ায়
ভোমরা হবে দেশের দ্বিতীয় বৃহত্তম স্থলবন্দর