দৃষ্টির বিজনেস আইডিয়া প্রতিযোগিতায় অংশ নিচ্ছে ৪৫টি দল

চট্টগ্রাম প্রতিদিন ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

অতিথিদের সঙ্গে ব্রেইন স্টর্মিং প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণকারী শিক্ষার্থীরা

চট্টগ্রাম: দৃষ্টি চট্টগ্রামের আয়োজনে রয়েল সিমেন্ট লিমিটেডের পৃষ্ঠপোষকতায় ব্রেইন স্টর্মিং বিজনেস আইডিয়া প্রতিযোগিতায় অংশ নিচ্ছে ৪৫টি দল।

বুধবার (১১ জুলাই) জেলা শিল্পকলা একাডেমি মিলনায়তনে প্রতিযোগিতার উদ্বোধন করেন দৈনিক পূর্বকোণের পরিচালনা সম্পাদক জসিম উদ্দিন চৌধুরী।

অতিথি ছিলেন জিপিএইচ ইস্পাতের মিডিয়া অ্যাডভাইজার অভীক ওসমান, সিটি ব্যাংক লিমিটেডের এক্সিকিউটিভ ভাইস প্রেসিডেন্ট কায়েস চৌধুরী, বারকোড গ্রুপের চেয়ারম্যান মঞ্জুরুল হক, রয়েল সিমেন্টের চিফ কমিউনিকেশন অফিসার ইঞ্জিয়ার ফয়সল নাসির খান ও রোটারি ক্লাব অব চিটাগাং মিড সিটির সভাপতি মুজিবুর রহমান।

দৃষ্টি চট্টগ্রামের সভাপতি মাসুদ বকুলের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বক্তব্য দেন প্রতিযোগিতার সমন্বয়কারী সাইফুদ্দিন মুন্না ও যুগ্ম সমন্বকারী ওমর সাদাব চৌধুরী।

পূর্বকোণ সম্পাদক বলেন, আমি বিশ্বাস করি তরুণেরা যদি মনোযোগী হয়, তাদের মস্তিষ্কের যথার্থ অণুরণন ঘটায় তাহলে অবশ্যই ভালো কিছু আসবে। আর ব্যবসার মূল উদ্দেশ্যই হলো কোনো জিনিসের ভালো খারাপ দিকগুলো খুঁজে বের করা। আর এর জন্য দরকার ছোট বড় সবার সঙ্গে আলোচনা করা। তাহলেই অভীষ্ট লক্ষ্য অর্জনে সমর্থ হবে তোমরা।

অভীক ওসমান বলেন, প্রতিবছর নতুন নতুন ব্যবসাক্ষেত্র চিন্তা করতে হবে। আগের ব্যবসা সময়ের আবর্তে চৌদ্দ পুরুষ ধরে চলার ধাঁচ এখন বদলেছে। আর বাংলাদেশের জন্য সবচেয়ে হিতকর হলো তার নিজের অভ্যন্তরীণ সম্পদের সর্বোত্তম ব্যবহার করা। যেমন: বন্দর, সিল্ক, চা ইত্যাদি।

তিনি বলেন, আমি বিশ্বাস করি, আপনাদের মধ্য থেকে হয়তো এমন কিছু আসবে যেটি আসলেই, সামান্য হলেও, কোনো পরিবর্তন নিয়ে আসবে বাংলাদেশের জন্য।

ফয়সাল নাসির খান বলেন, বিশ্বের সঙ্গে তাল মিলিয়ে বাংলাদেশে এগিয়ে যাচ্ছে, আর বাংলাদেশও পিছিয়ে নেই। বাংলাদেশের এগিয়ে যাওয়ার পেছনে রয়েছে তরুণদের হাত। ব্রেইন স্টর্মিং এমন একটি প্লাটফর্ম যেটি তরুণদের আইডিয়া ও নীতিনির্ধারক পর্যায়ের সেতুবন্ধন হিসেবে কাজ করবে।

মঞ্জুরুল হক বলেন, আমরা যারা চট্টগ্রামে থাকি ও চট্টগ্রাম নিয়ে ভাবি তারা বিশ্বাস করি যে সুন্দর আইডিয়া ও দৃষ্টিভঙ্গি বদলাতে পারে আমাদের চারপাশকে।

কায়েস চৌধুরী বলেন, ব্রেইন স্টর্মিং আমার জন্য একটি রোমাঞ্চকর বিষয়। কারণ এর মাধ্যমে আসলে তরুণ উদ্যোক্তা গড়ে ওঠার প্লাটফর্ম তৈরি হয়। বর্তমান বাংলাদেশের জন্য বেশি দরকার চাকরিবৃত্তির প্রবণতা থেকে বেরিয়ে এসে স্ব-উদ্যোগে কিছু করা। আমি আশাকরি অনুষ্ঠানটি সবার প্রত্যাশাকে ছাড়িয়ে যাবে।

ব্যবসা পরিকল্পনা, প্রসার-প্রচার এবং ব্র্যান্ডিংসংক্রান্ত এ প্রতিযোগিতা চট্টগ্রামে ৮ বছর ধরে হচ্ছে। এতে চট্টগ্রামের সব বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন বিভাগের শিক্ষার্থীরা অংশ নিচ্ছে।

এবার মূল প্রতিযোগিতা শুরু হবে শনিবার (১৪ জুলাই) বিকেলে। ২০ জুলাই এ প্রতিযোগিতার সমাপনী অনুষ্ঠান।

বাংলাদেশ সময়: ১২৪১ ঘণ্টা, জুলাই ১২, ২০১৮
এআর/টিসি

মেরিন শিক্ষানবিস হিসেবে ভর্তি বিজ্ঞপ্তি
কমলনগরে নিখোঁজের একদিন পর শিশুর মরদেহ উদ্ধার
শহিদের মুখোমুখি হচ্ছেন অভিষেক
শিল্পকলা একাডেমির নির্বাচনে ১০ পদে প্রতিদ্বন্দ্বী ৫১
ঠাকুরগাঁওয়ে বিএসএফের গুলিতে বাংলাদেশি নিহত
টেস্ট খেলতে অনিচ্ছুক সাকিব-মুস্তাফিজ!
ঝিনাইদহে মাইক্রোবাসের ধাক্কায় বাইসাইকেল আরোহী নিহত
বঙ্গোপসাগরে ট্রলার ডুবি, ১৭ জেলে নিখোঁজ
তিন জেলায় ‘বন্দুকযুদ্ধে’ ৩ মাদক বিক্রেতা নিহত
পার্বতীপুরে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ মাদক ব্যবসায়ী নিহত