জলাবদ্ধতা জীবনের অংশ আগ্রাবাদ এলাকায়

সরওয়ার কামাল, স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

আগ্রাবাদ সিডিএ আবাসিক এলাকা ও তার আশেপাশের এলাকার বাসিন্দাদের জীবনের অংশে পরিণত হয়েছে জলাবদ্ধতা। ছবি: বাংলানিউজ

চট্টগ্রাম: আগ্রাবাদ সিডিএ আবাসিক এলাকা ও তার আশেপাশের এলাকার বাসিন্দাদের জীবনের অংশে পরিণত হয়েছে জলাবদ্ধতা। ক্রমশ এ জলাবদ্ধতা প্রকট আকার ধারণ করেছে। সামান্য বৃষ্টিতে নদীতে পরিণত হয় পুরো এলাকা। জোয়ারের সময় ও বর্ষাকালে তো পুরো সমুদ্র সৈকতে পরিণত হয়।’

বলছিলেন কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী তাহরিমা তাহসিন লিমা। বাবা সরকারি চাকরিজীবী। বাবার চাকরির সুবাদে ২০০৩ সাল থেকে বড় হয়েছেন আগ্রাবাদ সিজিএস কলোনিতে। ঈদের ছুটি কাটাতে গত সপ্তাহে এসেছেন বাসায়।

মঙ্গলবার (১২ জুন) দুপুরে বাংলানিউজকে এসব কথা বলেন তিনি।

তিনি বলেন, ছোটবেলা থেকে এই পানির সঙ্গে বসবাস করে অভ্যস্ত আমরা। এই পানি মাড়িয়ে স্কুল-কলেজে গিয়েছি। কতবার খোস-পাঁচড়া হয়েছে তার হিসেব নেই।

মঙ্গলবার দুপুরে সরেজমিনে দেখা যায়, আগ্রাবাদ সিডিএ আবাসিক এলাকা, সরকারি কলোনি, বহুতলা কলোনি, সোনালী ব্যাংক অফিসার্স কলোনি, মা ও শিশু হাসপাতালসহ এলাকাগুলো পানির নিচে রয়েছে।

গত দুইদিন ধরে পানি নামেনি এসব এলাকা থেকে।

আগ্রাবাদ এলাকার বাসিন্দা ও চট্টগ্রাম মহিলা কলেজের প্রভাষক ফাহিমা আমজাদ চৌধুরী সাথী বাংলানিউজকে বলেন, গত দুইদিন ধরে পানিবন্দি স্থানীয়রা।

চট্টগ্রাম মা ও শিশু হাসাপাতালের পরিচালক ডা. নুরুল হক বাংলানিউজকে বলেন, প্রতিবছর বর্ষাকালে হাসপাতালে আগত রোগীরা সীমাহীন কষ্ট ভোগ করতে হয়। এছাড়াও জোয়ারের সময়ও হাসপাতালের নিচ তলায় পানি ঢুকে যায়। হাসপাতালের নিচতলা এখন ব্যবহার অনুপযোগী হয়ে পড়েছে।

মঙ্গলবার দুপুর ২টায় হাসপাতালে নিচতলায় একহাঁটু পানি রয়েছে দেখা যায়।

এছাড়া বহুতলা কলোনি, সোনালী ব্যাংক অফিসার্স কলোনি, সিডিএ আবাসিক এলাকায় একহাঁটু পরিমাণ পানি দেখা যায়।

বাকলিয়া সরকারি স্কুলমাঠে মাছ ধরছে মানুষ!

তিন দিন ধরে ‘পানিবন্দি’ বাদুরতলা

বাংলাদেশ সময়: ১৭২৬ ঘণ্টা, জুন ১২, ২০১৮

এসকে/টিসি

২-০ গোলে এগিয়ে গেল সেনেগাল
টাইগ্রেসদের ১৪ সদস্যের দল ঘোষণা
জিততে হলে সালাহকে রুখতে হবে রাশিয়ার: মরিনহো
ডিজিটাল যুগে এনালগ সিএমপি!
ডিমলায় পৃথক ঘটনায় ৪ মরদেহ উদ্ধার
ব্যথা ও অস্বস্তি নিয়ে অনুশীলন ছাড়লেন নেইমার
আত্মঘাতী গোলে প্রথমার্ধে এগিয়ে সেনেগাল
কর্ণফুলীর দূষণ নিয়ে গবেষণায় কিশোর মুক্তিযোদ্ধার পিএইচডি
বঙ্গভবনে রাষ্ট্রপতির সঙ্গে প্রধানমন্ত্রীর সাক্ষাৎ
আত্মঘাতী গোলে এগিয়ে গেল সেনেগাল