মানসম্মত শিক্ষার জন্য চাই ভালো শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান

ইউনিভার্সিটি করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

বক্তব্য দেন প্রবাসীকল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থানমন্ত্রী নুরুল ইসলাম বিএসসি

চট্টগ্রাম: মানসম্মত শিক্ষা অর্জনের জন্য ভালো শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের বিকল্প নেই উল্লেখ করে প্রবাসীকল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থানমন্ত্রী নুরুল ইসলাম বিএসসি বলেছেন, ‘বর্তমান সরকারের আমলে প্রতিটি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে মানসম্মত অবকাঠামো ও ডিজিটাল শিক্ষাব্যবস্থা গড়ে তোলা হয়েছে।’

বৃহস্পতিবার (১২ এপ্রিল) সকালে সানোয়ারা বালক উচ্চ বিদ্যালয়ের বাংলা নববর্ষ উদযাপন, স্কুল অ্যাপস ও ম্যুরাল উদ্বোধন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

নুরুল ইসলাম বিএসসি বলেন, ‘আমি ব্যক্তিগত উদ্যোগে অনেক শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান করেছি। এখন সবার দায়িত্ব হচ্ছে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলোকে সঠিকভাবে পরিচালনা করা। সানোয়ারা ইসলাম বালক উচ্চ বিদ্যালয় পরীক্ষার ফলাফল বিবেচনায় নগরীর অন্যতম একটি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান।’

তরুণ শিল্পপতি, ক্রীড়া সংগঠক জাহেদুল ইসলামের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে উদ্বোধক হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সানোয়ারা ইসলাম বালক উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রতিষ্ঠাতা সদস্য ও মন্ত্রীর সহধর্মিণী সানোয়ারা বেগম।

বিশেষ অতিথি ছিলেন সানোয়ারা গ্রুপ অব কোম্পানির এমডি মুজিবুর রহমান, মন্ত্রীর মেয়ে সংগীতশিল্পী শাকিলা জাহান ও স্কুলের সদস্য নাজমুল হক (নজু)।

সানোয়ারা বেগম বলেন, বর্তমান সরকার শিক্ষাবান্ধব সরকার। শিক্ষার মানোন্নয়নে শেখ হাসিনার সরকার কাজ করে যাচ্ছে। বর্তমান সরকারের আমলে শিক্ষা, স্বাস্থ্য, যোগাযোগ, পরিবেশ প্রতিটি ক্ষেত্রে আমূল পরিবর্তন হয়েছে। বছরের প্রথম দিন বিনামূল্যে বই বিতরণ সরকারের একটি যুগান্তকারী সাফল্য। শিক্ষার্থীরা যাতে জঙ্গিবাদে জড়িয়ে না যায় অভিভাবকদের লক্ষ্য রাখতে হবে। আগামীতে এ প্রতিষ্ঠানের অগ্রযাত্রা আরও সাফল্যময় হবে।

বিশেষ অতিথি মুজিবুর রহমান বলেন, আমার বাবার পথ অনুসরণ করে আমি চিটাগং কিন্ডারগার্ডেন ও হাজেরা-তজু স্কুল অ্যান্ড কলেজ প্রতিষ্ঠা করেছি। শিক্ষার জন্য আমরা সবসময় কাজ করে আসছি। এ প্রতিষ্ঠানটিকে একটি ব্যতিক্রমধর্মী প্রতিষ্ঠান হিসেবে গড়ে তোলার জন্য আমাদের আন্তরিক প্রচেষ্টা রয়েছে।

স্কুলের সভাপতি জাহেদুল ইসলাম বলেন, আমার বাবা শিক্ষার জন্য যে অবদান রেখেছেন তা অবিস্মরণীয়। সানোয়ারা ইসলাম বালক উচ্চ বিদ্যালয়ের ব্যাপক উন্নয়ন হয়েছে। আগামীতেও উন্নয়নের ধারা অব্যাহত থাকবে। স্কুলের শিক্ষাকার্যক্রম ডিজিটাল করার জন্য স্কুল অ্যাপস গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে বলে আমি আশা করি।

বক্তব্য দেন শিক্ষানুরাগী সদস্য নজমুল হক (নজু), প্রধান শিক্ষক আবুল মনছুর চৌধুরী প্রমুখ।

বাংলাদেশ সময়:১৭১৫ ঘণ্টা, এপ্রিল ১২, ২০১৮

জেইউ/টিসি       

অসাম্প্রদায়িক দেশ গড়ার প্রত্যয়ে ‘স্বর্গপুরী উৎসব’
গীতাঞ্জলি জুয়েলার্সের নতুন শাখা উদ্বোধন
ভর্তি পরীক্ষার্থীদের পদচারণায় মুখর ইডিইউ
অনুভূতির রঙে সৃষ্টি-শান্তি-বিস্ময়
একতরফা নির্বাচনে আওয়ামী লীগ আবারো ক্ষমতায় আসতে চায়
৪৭ বছরেও মুক্তিযুদ্ধের ঘোষণাপত্র বাস্তবায়ন হয়নি
ময়মনসিংহে যুবককে কুপিয়ে হত্যা
বরিশালে বাসদের আহ্বায়ক-সদস্য সচিবসহ ৬ জন কারাগারে
কটিয়াদীতে ভাইয়ের হাতে ভাই খুন
ম্যাচ খেলতে ভারতীয় প্রতিবন্ধী ক্রিকেট দল বাংলাদেশে

Alexa