নববর্ষের রঙে রঙিন হচ্ছে হোটেল-রেস্টুরেন্ট

আল রাহমান, সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

ওয়েল পার্ক রেসিডেন্সের নববর্ষ উপলক্ষে সাজানো হয়েছে গেট, পেনিনসুলার লবিতে বাঙালিয়ানার সাজ

চট্টগ্রাম: দরজায় কড়া নাড়ছে বাংলা নববর্ষ। চারদিকে সাজ সাজ রব। নতুন পোশাক কেনার ধুম পড়েছে। চলছে মঙ্গল শোভাযাত্রার প্রস্তুতি। নববর্ষের রঙে রঙিন হচ্ছে নগরীর অভিজাত হোটেল-রেস্টুরেন্টগুলো।

জিইসি মোড়ের দি পেনিনসুলা চিটাগংয়ের লবি সাজানো হয়েছে বাংলার ঐতিহ্যবাহী নানা মুখোশ, ঢোল, ঘুড়ি, হাতি, ঘোড়া দিয়ে। ঢুকতেই চোখে পড়বে নতুন একটি রিকশা। তারপর বাংলায় ‘শুভ নববর্ষ’। শিগগির বৈশাখী সাজে সাজবে লেগুনা রেস্টুরেন্টটি।

পেনিনসুলার মার্কেটিং ব্যবস্থাপক সুনেরা রহমান বাংলানিউজকে জানান, পহেলা বৈশাখে নারীদের জন্য বিনামূল্যে হেনা জোন, শিশুদের জন্য রঙিন মুখোশ, সবার জন্য চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতা, দিনব্যাপী লাইভ সংগীতানুষ্ঠান ও আনন্দমেলা থাকবে। এ ছাড়া শতাধিক পদের ব্যুফে লাঞ্চের সঙ্গে থাকছে বিশেষ ঝালমুড়ি কর্নার, ফুচকা কর্নার। লাঞ্চে জনপ্রতি খরচ পড়বে ভ্যাট ও সার্ভিস চার্জ বাদে ১৫৮১ টাকা। ডিনারে দুইজনের খরচ পড়বে ২৮০০ টাকা।     

ওয়েল পার্ক রেসিডেন্সের মহাব্যবস্থাপক এমএ মনসুর বাংলানিউজকে বলেন, বাঙালি সংস্কৃতি ধারণ ও লালন করে প্রতিবছরের মতো এবারও পহেলা বৈশাখে বর্ণাঢ্য আয়োজন থাকছে ওয়েল পার্ক রেসিডেন্সে। মূলত দেশি-বিদেশি অতিথিদের বাঙালি সংস্কৃতি, খাবার-দাবারের সঙ্গে পরিচিত করতেই এ আয়োজন।

তিনি জানান, এবার ১০১ পদের ব্যুফে লাঞ্চ থাকবে পহেলা বৈশাখে। এর মধ্যে ২০ পদের ভর্তা, ৭ পদের শাক, ৭ পদের চাঁদপুরের ইলিশ, ২০ পদের পিঠাপুলি, রকমারি সামুদ্রিক ও দেশি মাছ, গরু, ছাগল, মুরগি, হাঁস ও কোয়েল পাখির মাংস, রকমারি আচার, সালাদ, ডেজার্ট আর গ্রিন ফ্রুটস কর্নার থাকবে। দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে এসব পদের জন্য ফ্রেশ উপকরণগুলো সংগ্রহ করছি আমরা। দাদা-দাদি, নানা-নানি থেকে শুরু করে মা-চাচিদের রান্নার যে স্বাদ তা-ই উপস্থাপন করতে চাই আমরা।   

ওয়েল পার্ক রেসিডেন্সে দুপুর এবং রাতের সমগ্র আয়োজন উপভোগ করা যাবে জনপ্রতি দেড় হাজার টাকায়। দুইজনের সঙ্গে বিনামূল্যে ব্যুফেতে অংশ নিতে পারবেন আরও একজন।

এমএ আজিজ স্টেডিয়াম পাড়ায় ভোজনরসিকদের ঠিকানা হয়ে ওঠা রোদেলা বিকেলের মহাব্যবস্থাপক সাইনুল সাবের বাংলানিউজকে বলেন, পহেলা বৈশাখের জন্য আনা হচ্ছে দেড়-দুই কেজি ওজনের চাঁদপুরের ইলিশ। সর্ষেবাটা ও ফ্রাই করা হবে ইলিশের। এ ছাড়া চিতল মাছের পেটি, কোপ্তা, রুপচাঁদা ফ্রাই, কোরাল, মেজবানি মাংস, মাটন ভুনা থাকবে। ওই দিন সকাল সাতটা থেকে বেলা ১১টা পর্যন্ত স্পেশাল নাশতা থাকবে। লাঞ্চে জনপ্রতি প্যাকেজ (প্লেটার) থাকবে ২২০ থেকে ৬০০ টাকার। এর মধ্যে ইলিশ-সাদাভাত, ভুনা খিচুড়ি, চিকেন বিরিয়ানি, মাটন বিরিয়ানি, কাচ্চি বিরিয়ানি, রকমারি শাক, ভর্তা, সবজি, ডাল থাকবে। থাকবে আমের আচার, ডিম কারি, সালাদ ইত্যাদি।    

এ ছাড়া নগরীর হোটেল আগ্রাবাদ, অ্যাম্ব্রোশিয়া, সিলভার স্পুন, হান্ডি, পিটস্টপ, দমফুঁক, এরিস্টোক্রেসি, রেডচিলি, গ্যালারি, গ্রিডিগার্ডস, সাফরান রেস্টুরেন্ট, দাওয়াত, তাসফিয়া গার্ডেন, হাইয়ুম ইত্যাদি হোটেল-রেস্টুরেন্টেও থাকছে নববর্ষের বিশেষ আয়োজন।    

নগরীর এমএম আলী সড়কে চারতলা ভবন নিয়ে সম্প্রতি চালু হয়েছে তেহরান রেস্টুরেন্ট। প্রতিষ্ঠানের স্বত্বাধিকারী আমিনুল হক বাবু বাংলানিউজকে জানান, পহেলা বৈশাখে অনেক মানুষ সকাল থেকে ডিসি হিল, সিআরবির শিরীষতলাসহ বিভিন্ন স্থানে নববর্ষের অনুষ্ঠান উপভোগ করে আর ঘরে খেতে চান না। তারা ছুটে আসেন রেস্টুরেন্টে। তাই নববর্ষকে ঘিরে প্রতিটি রেস্টুরেন্টেই পান্তা-ইলিশ, রকমারি ভর্তা, ডালসহ মজাদার সব খাবার তৈরি হয়। আমরাও স্পেশাল কিছু মাছ আর ভর্তা রাখছি পহেলা বৈশাখে।

বাংলাদেশ সময়: ২১১২ ঘণ্টা, এপ্রিল ১১, ২০১৮

এআর/টিসি

 

অসাম্প্রদায়িক দেশ গড়ার প্রত্যয়ে ‘স্বর্গপুরী উৎসব’
গীতাঞ্জলি জুয়েলার্সের নতুন শাখা উদ্বোধন
ভর্তি পরীক্ষার্থীদের পদচারণায় মুখর ইডিইউ
অনুভূতির রঙে সৃষ্টি-শান্তি-বিস্ময়
একতরফা নির্বাচনে আওয়ামী লীগ আবারো ক্ষমতায় আসতে চায়
৪৭ বছরেও মুক্তিযুদ্ধের ঘোষণাপত্র বাস্তবায়ন হয়নি
ময়মনসিংহে যুবককে কুপিয়ে হত্যা
বরিশালে বাসদের আহ্বায়ক-সদস্য সচিবসহ ৬ জন কারাগারে
কটিয়াদীতে ভাইয়ের হাতে ভাই খুন
ম্যাচ খেলতে ভারতীয় প্রতিবন্ধী ক্রিকেট দল বাংলাদেশে

Alexa