সুবর্ণজয়ন্তী নিয়ে বিরোধে নাসউবি’র প্রাক্তন ছাত্ররা

ব্যুরো এডিটর | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

লোগো

চট্টগ্রাম: ঐতিহ্যবাহী নাসিরাবাদ সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ের সুবর্ণজয়ন্তী উৎসব নিয়ে বিরোধ সৃষ্টি হয়েছে।  বিদ্যালয়ের প্রাক্তন ছাত্র সমিতি এবং প্রাক্তন ছাত্র পরিষদ নামে দুটি পক্ষ উৎসব নিয়ে মুখোমুখি অবস্থানে দাঁড়িয়েছে।  বিরোধ না মিটলে জেলা প্রশাসন কাউকেই উৎসবের অনুমতি না দেওয়ার ঘোষণা দিয়েছে।

১২ ও ১৩ জানুয়ারি বিদ্যালয় মাঠ ও মিলনায়তনে উৎসব হওয়ার কথা রয়েছে। তবে বিরোধের প্রেক্ষিতে জেলা প্রশাসনের দেওয়া ঘোষণায় এই আয়োজন নিয়ে অনিশ্চয়তা দেখা দিয়েছে।

জানতে চাইলে চট্টগ্রামের জেলা প্রশাসক মো. জিল্লুর রহমান চৌধুরী বাংলানিউজকে বলেন, দুইপক্ষই সুবর্ণজয়ন্তী উৎসব করতে চায়।  আমি স্পষ্ট বলেছি, যদি উভয়পক্ষ সমঝোতায় আসতে না পারে তাহলে কাউকেই করতে দেব না।  বুড়ো বয়সে তাদের মারামারি না করতে বলেছি।  সুবর্ণজয়ন্তীর নামে এসব ফাজলামির দরকার নাই।

জানতে চাইলে নগর পুলিশের উপ-কমিশনার (উত্তর) মো.আব্দুল ওয়ারিশ খান বাংলানিউজকে বলেন, আমাদের কাছে সর্বশেষ তথ্য হচ্ছে, দুইপক্ষ সমঝোতায় এসেছে।  তারা যদি মিলেমিশে করতে পারে তাহলে ভাল।  আর যদি সেটা না হয়, অনুমতি যেহেতু জেলা প্রশাসন দেবে, তারা যা সিদ্ধান্ত দেবে সেটাই আমরা বাস্তবায়ন করব।

এক বছর আগে গৌরবের সুবর্ণজয়ন্তী উদযাপন পরিষদ উৎসব আয়োজনের একটি উদ্যোগ নেয়।  এরপর প্রাক্তন ছাত্র সমিতি নামে একটি সংগঠন পৃথক আয়োজনের ঘোষণা দেয়।  তখন উদযাপন পরিষদের সভাপতি ব্যারিস্টার মনোয়ার হোসেন এবং মহাসচিব শওকত বাঙালি আয়োজন থেকে সরে দাঁড়ানোর ঘোষণা দেন।

এরপর প্রাক্তন ছাত্র সমিতি উৎসব আয়োজনের প্রস্তুতি এগিয়ে নিয়ে যায়।  সম্প্রতি প্রাক্তন ছাত্র পরিষদ নামে আরেকটি সংগঠন পাল্টা উৎসব আয়োজনের ঘোষণা দিয়েছে।  এরপরই মূলত জেলা প্রশাসন কঠোর অবস্থান নিয়েছে।

বাংলাদেশ সময়: ২১৪৩ ঘণ্টা, জানুয়ারি ১০, ২০১৮

টিসি

২০০ টন স্বর্ণসহ নিখোঁজ সেই রুশ জাহাজ দ. কোরিয়ায়
স্বপন হত্যায় রত্না-মামুনের স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি
চসিক পরিচালিত কলেজে পাসের হার ৭০.৭৮ শতাংশ
কুবির সেই শিক্ষককের বিরুদ্ধে তদন্ত কমিটি
পছন্দের গাছ কিনতে মেলায় বৃক্ষপ্রেমীরা 
সবচেয়ে দামি ফুটবল ক্লাব ম্যানইউ
ইলহাম হত্যা মামলা তদন্ত করবে সিআইডি
শুক্রবার এজাহারটি মামলা হিসেবে রেকর্ড করতে হবে: সিইউজে
অ্যাটর্নি জেনারেলকে হত্যার হুমকি, থানায় জিডি
মন্ত্রীর কাঁধে রাজনৈতিক সহকর্মীর মরদেহ