‘কালি ও কলম তরুণ কবি-লেখক পুরস্কার’, বই জমা শুরু

শিল্প-সাহিত্য ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

কালি ও কলম তরুণ কবি-লেখক পুরস্কার-২০১৮

ঢাকা: শিল্প-সাহিত্যের বিকাশে তরুণদের আরও গতিশীল এবং সৃজনশীলতায় ফেরাতে মাসিক সাহিত্য পত্রিকা ‘কালি ও কলম’ প্রতিবছরই তরুণ কবি ও লেখককে পুরস্কার দিয়ে থাকে। এর ধারাবাহিকাতায় এবারও প্রতিযোগিতায় অংশ নিতে আগ্রহী লেখকদের কাছ থেকে বই জমা নিতে শুরু করেছে পত্রিকাটি।

এবারও পাঁচটি বিভাগে পুরস্কার দেবে ‘কালি ও কলম’। বিভাগগুলো হলো: ১. কবিতা, ২. কথাসাহিত্য, ৩ প্রবন্ধ, গবেষণা ও নাটক, ৪. মুক্তিযুদ্ধভিত্তিক সাহিত্য ও গবেষণা এবং ৫. শিশু-কিশোর সাহিত্য।

এতে বিজয়ী প্রত্যেককে পুরস্কার হিসেবে এক লাখ টাকা, একটি ক্রেস্ট ও একটি সম্মাননাপত্র দেওয়া হবে।

এদিকে, প্রতিযোগিতায় অংশ নিতে কিছু নিয়মাবলী মানতে হবে কবি-লেখকদের।

তার মধ্যে, ১. জমা দেওয়া বইগুলোর সঙ্গে একটি ঘোষণাপত্র দিতে হবে যে, বইটি বাংলাদেশি লেখকের মৌলিক সাহিত্যকর্ম এছাড়া লেখকের বয়স ১৮ থেকে অনূর্ধ্ব ৪০ বছর (গ্রন্থ প্রকাশকাল) এবং বইটি এই পুরস্কারের জন্যে উপস্থাপন করা হচ্ছে এমন।

২. বয়স প্রমাণের জন্য জাতীয় পরিচয়পত্র অথবা সমমানের সনদের অনুলিপি পাঠাতে হবে।

৩. পুরস্কার দেওয়ার পর কোনো কারণে যদি জানা যায়, পুরস্কারপ্রাপ্ত ওই বই অন্য কোনো বইয়ের হুবহু অথবা আংশিক প্রতিরূপ। সেক্ষেত্রে পুরস্কার প্রত্যাহারের অধিকার বিচারকমণ্ডলীর কাছে সংরক্ষিত থাকবে।

৪. পুরস্কার কর্মসূচির যেকোনো পর্যায়ে বাছাইয়ের সঙ্গে জড়িত ব্যক্তির রচিতগ্রন্থ পুরস্কারের জন্যে বিবেচিত হবে না।

৫. চূড়ান্ত বাছাই শেষে একটি অনুষ্ঠানের মাধ্যমে পুরস্কার দেওয়া হবে। আর পুরস্কারের বিষয়ে বিচারকমণ্ডলীর সিদ্ধান্তই হবে চূড়ান্ত।

কালি ও কলম, মেগাডোরি, ৫ম তলা, বাড়ি ৫৭/এ, সড়ক ১৫/এ (নতুন) ধানমন্ডি, ঢাকা ১২০৯, ঠিকনায় আগ্রহীরা বই পাঠাতে পারবেন। এছাড়া যোগাযোগ করতে পারেন +৮৮ ০২ ৫৫০২৯৩২৪, +৮৮০ ১৮৪৪ ০৫০৬৬৯ এই দুই নম্বরে।

বাংলাদেশ সময়: ১৫৫৮ ঘণ্টা, আগস্ট ০৯, ২০১৮
টিএ

ঈদযাত্রার দ্বিতীয় দিনেও ট্রেনের শিডিউল বিপর্যয়
‘মোরা তো কফাল ঠিহা মাছ পাই’
খাগড়াছড়িতে ৬ জনকে গুলি করে হত্যা
ইতিহাস লেখার অপেক্ষায় মারিয়া-তহুরারা
ঘরে ফিরতে কমলাপুরে জনসমুদ্র
বিনিয়োগকারীদের পুঁজি বেড়েছে ৬ হাজার কোটি টাকা
কুষ্টিয়ার মিরপুরে যুবকের মরদেহ উদ্ধার
গাবতলী পশুর হাটে জমে ওঠেনি বেচাকেনা
শিমুলিয়া-কাঁঠালবাড়ী নৌরুটে পারের অপেক্ষায় ২০০ গাড়ি
হারিয়ে যাচ্ছে ‘হলদে-পা হরিয়াল’