আশরাফুল কবীরের দুটি কবিতা

শিল্প-সাহিত্য~কবিতা | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

...

এ’পাশের বাড়িটা তমালিকার আর ও’পাশের
বাড়িটা রাজ-জুয়ারির;
অনেক আকাঙ্ক্ষা আর তীব্র ইচ্ছেতে ভরপুর

এখনো কেউ ডাকে নিমীলিত চোখে

এ’পাশের বাড়িটা তমালিকার আর ও’পাশের
বাড়িটা রাজ-জুয়ারির;
অনেক আকাঙ্ক্ষা আর তীব্র ইচ্ছেতে ভরপুর
তেতে থাকা চৈত্রের উঠোন; ফুরসতে 
অপার্থিব আর অলৌকিক পুণ্ডরীক কিছু পাওয়ার আশায়
অপেক্ষায় থাকে বহুদিন।

এমনি ফুরোয় সকাল, এমনি ফুরোয় বিকেল
এমনি-এমনি রোজ ফুরিয়ে যায় পঁয়ত্রিশটি দুপুর
অনেকটা কাছাকাছি এসেও কিছু বলতে গিয়ে 
থমকে দাঁড়ায় উচ্ছ্বসিত নূপুর; অবলীলায় 
রাতের মুঠোতে পুরে যায় নিস্তরঙ্গ ঘোর।

ধীরে ধীরে তমালিকার ছায়া হেলে যায়
ভারবাহী বুক খুলে দেয় মেঘেদের ডাকবাংলো
তরতরিয়ে বেড়ে উঠে শস্যের কলেবর
অতঃপর বৃষ্টি নামে কবিতা হয়ে; 
বাড়তে থাকে কবিতার বহর
চিত্রনাট্য টুকে রাখে জুয়ারি ও তার নোটবুক
ক্যাফেতে নামে ঢল।

হিরণ্যমাখা দুপুরে কে শুধোয়?
এ’পাশের বাড়িটা ছিলো তমালিকার 
আর ও’পাশের বাড়িটা ছিলো জীবন-জুয়ারির
পূর্ণেন্দুতে একাকার শুধু সমীকরণে রয়ে যায় 
সন্ধি-বিচ্ছেদের প্রচণ্ড ভুল!


প্রহর

ফিরছি বহু বছর পরে 
আবছা হতে থাকা বাড়িটার সদর-দরজায়।
এখনো সেই নিরেট দেয়ালের চত্বর! 
হারিয়েছে হাড়-গোড়, কুঁড়িভরা হৃৎস্পন্দন;
কড়া নেড়ে চলে কিছু চকমকি পাথর,
লুপ্ত হয়ে যাওয়া শ্রবণ!
আজো মৃদু বাতাসের অপেক্ষায় থাকে 
এক জরাজীর্ণ ভেন্টিলেটর! 
শুধুমাত্র আড়ালে পড়ে রয় দু-এককথা; কিয়ৎ
পাহারাবিহীন সারিবদ্ধ প্রহর।

বাংলাদেশ সময়: ১৩০৩ ঘণ্টা, জুন ১৯, ২০১৮
এমজেএফ

প্রস্তুতি ম্যাচে বাংলাদেশের ড্র
ভারতে ১৩ বছর জেল খেটে দেশে শাহাজান
তাড়াইল উপজেলা চেয়ারম্যান কামাল উদ্দিন কাঞ্চন আর নেই
শুধু পানি খেয়ে গুহায় ১০ দিন পার করেছি
সঞ্চয়পত্র কেনার হিড়িক
প্রবাসীদের এনআইডি দিতে দূতাবাসে ‘লোকাল সার্ভার’
নন্দিত কথাসাহিত্যিক হুমায়ূন আহমেদের প্রয়াণ
পরিবারে মতবিরোধ সিংহের, ধনুর কর্মক্ষেত্রে উন্নতি
সাইপ্রাসের উত্তরাঞ্চলে নৌকা ডুবে ১৯ জনের প্রাণহানি
বাগেরহাটে খাল থেকে যুবকের মরদেহ উদ্ধার