'ভালো থাকো, ও বন্ধু আমার...'

ড. মাহফুজ পারভেজ, কন্ট্রিবিউটিং এডিটর | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

কবি আবিদ আজাদ

সত্তর দশকের আধুনিক বাংলা কবিতায় রোমান্টিক দোলার নাম ছিল আবিদ আজাদ। পুরোটাই ভাটি বাংলার গড়নে তৈরি এই কবি প্রেম ও বিষাদের কাব্যভাষ্যে আধুনিকতার ছোঁয়ায় এনেছিলেন চমক, দ্যুতি ও ঝলক। আজ (২২ মার্চ) তার ১২তম মৃত্যুবার্ষিকী।

আবিদ আজাদের ৫২ বছরের জীবনে 'ঘাসের ঘটনা' প্রথম কাব্যগ্রন্থ। বের হয় ১৯৭৬ সালে। তারপর 'বনতরুদের মর্ম', 'শীতের রচনাবলী', 'তোমাদের উঠোনে কি বৃষ্টি নামে? রেলগাড়ি থামে?' ইত্যাদি সাড়া জাগানো কাব্য রচিত হয় তার কুশলী হাতে। সম্পাদনা করেছেন সাহিত্যপত্র 'কবি', 'শিল্পতরু' । 

চোখের সামনে আজও ভাসে কাঁঠাল বাগানের ঢালে আবিদ ভাইয়ের শিল্পতরু অফিস। দীর্ঘ দিবস ও রজনী আরও বহুজনের সঙ্গে কেটে গেছে সেখানে কাব্য-ঘোরাক্রান্ত  সময়। কিশোরগঞ্জের শ্যামলিম মৃত্তিকা থেকে রাজধানী ঢাকা পর্যন্ত অতিক্রান্ত তার জীবনের পথে মেঘ হয়ে ভাসছে আমারও নিজস্ব কিছু স্মৃতি।

'তুমি নেই বলে বাংলা কবিতা ব্যথিত হয়ে আছে।' আবিদ আজাদ সম্পর্কে যথার্থ বলেছেন তার বন্ধু কবি ফারুক মাহমুদ। বলেছেন, 'আবিদ আজাদ, সমকালীন কবিতার বিশিষ্ট কবি। অকালঅবসিত এই কবি চিরকাল মৃত্যুভয়ে ভীতু হয়ে দীর্ঘ রোগযাতনা সয়েছেন।'

একটা সময় এল, মৃত্যুভীতি থাকল না। তার কবিতা হয়ে উঠল শানিত, সোজা, দৃঢ়। মৃত্যুর আগের দিনও লিখলেন কবিতা। কী সাহসী উচ্চারণ:

'চলো আমি প্রস্তুত এখন
ভালো থাকো, ও বন্ধু আমার...'

তাকে স্মরণ করা যায়, তারই রচিত পংক্তিতে,  'ভালো থাকো, ও বন্ধু আমার...।'

বাংলাদেশ সময়: ১৮৩৮ ঘণ্টা, মার্চ ২২, ২০১৮

এমপি /জেএম.

হবিগঞ্জে বঙ্গবন্ধু-বঙ্গমাতা ফুটবল টুর্নামেন্টের উদ্বোধন
প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে মোহাম্মদ আল মেহরির ‍সাক্ষাৎ
মিয়ানমার সংলাপে আছে, কাজে নেই: প্রধানমন্ত্রী
সেমগ্রুপের প্রীতি ক্রিকেট ম্যাচ
খুলনা শিল্পকলার নির্মাণাধীন ভবন পরিদর্শনে এমপি মিজান
শাহজালালের ইমিগ্রেশন অফিসে আগুন, নিয়ন্ত্রণে ৭ ইউনিট
মিয়ানমারে প্রত্যাবাসনের পরিবেশ এখনও তৈরি হয়নি 
চুয়েটে ইনটেলিজেন্স অ্যান্ড মেশিন লার্নিং বিষয়ক সেমিনার
তজুমদ্দিনে জোয়ারে প্লাবিত ৩ গ্রাম
অস্তিত্ব টিকিয়ে রাখতেই নির্বাচনে অংশ নেবে বিএনপি