খালেকের মনোনয়ন বাতিলের দাবি মঞ্জুর

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

তালুকদার আব্দুল খালেক ও নজরুল ইসলাম মঞ্জু

খুলনা: হলফনামায় তথ্য গোপনের অভিযোগ এনে খুলনা সিটি করপোরেশন (কেসিসি) নির্বাচনে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী তালুকদার আব্দুল খালেকের মনোনয়ন বাতিল করে ব্যবস্থা নিতে লিখিত অভিযোগ জানানো হয়েছে। 
 

সোমবার (১৬ এপ্রিল) দুপুর আড়াইটায় কেসিসি নির্বাচনে বিএনপির মনোনীত মেয়র প্রার্থী নজরুল ইসলাম মঞ্জু রিটার্নিং অফিসারের কাছে এ অভিযোগ দাখিল করেন। 

লিখিত অভিযোগে বলা হয়, তালুকদার আব্দুল খালেক সাউথ-বাংলা এগ্রিকালচার অ্যান্ড কমার্স ব্যাংক লিমিটেডের পরিচালনা পর্ষদের ভাইস প্রেসিডেন্ট। নর্থ-ওয়েস্টার্ন ইউনির্ভাসিটির ট্রাস্টিবোর্ডের চেয়ারম্যান। ইস্টার্ন পলিমার লিমিটেডের পরিচালক ও সর্বময় নিয়ন্ত্রণকারী। এখান থেকে তিনি নিয়মিত বিপুল পরিমাণ অর্থ আয় করেন।

তালুকদার আব্দুল খালেক তার নির্বাচনী হলফনামায় এসব তথ্য গোপন করেছেন। এমনকি ইস্টার্ন পলিমার লিমিটেডের নেওয়া ঋণ তথ্যও তিনি হলফনামায় উল্লেখ করেননি। এছাড়া দলীয় মনোনয়নপত্রে তার ভোটার নম্বরও উল্লেখ করা হয়নি। 

‘স্থানীয় সরকার নির্বাচন বিধিমালা ২০১০ এর ১২ ধারা অনুযায়ী মনোনয়নপত্রের সঙ্গে হলফনামা দাখিল করার বিধান রয়েছে। ওই হলফনামায় তথ্য গোপন করলে কিংবা মিথ্যা তথ্য দিলে তার প্রার্থিতা বাতিলের বিধান রয়েছে। অভিযোগ তদন্ত করে মনোনয়ন বাতিল ও প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের অনুরোধ জানানো হয়েছে।’

অভিযোগ গ্রহণ করেছেন সিনিয়র জেলা নির্বাচন অফিসার ও সহকারী রিটার্নিং অফিসার মো. হুমায়ুন কবির। 

এছাড়া সোমবার দুপুরে মহানগরীর উদয়ন ক্লাবে সাংবাদিকদের সঙ্গে মতবিনিময়কালে মঞ্জু বলেন, খুলনায় ভোটাধিকার প্রয়োগে নাগরিক অধিকার প্রতিষ্ঠায় সিটি করপোরেশন নির্বাচনে গণজোয়ারের সৃষ্টি হবে। খুলনার মানুষ ভোটাধিকার প্রয়োগের জন্য নির্বাচন কমিশন ও আইন-শৃংখলা রক্ষাকারী বাহিনীর কাছ থেকে পরিপূর্ণ নিশ্চয়তা চায়। ভোট ডাকাতির চেষ্টা করা হলে বিএনপি ও তার অঙ্গ সংগঠনের কর্মীরা জীবন দিয়ে হলেও তা প্রতিহত করবে।

আওয়ামী লীগের মনোনীত মেয়র প্রার্থী তালুকদার আব্দুল খালেক তার হলফনামায় ব্যাংক ও একটি বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের মালিকানার কথা উল্লেখ না করে চাতুরতার আশ্রয় নিয়েছেন বলেও অভিযোগ করেন তিনি। 

দুপুর ১২টায় কে ডি ঘোষ রোডে দলীয় কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত যৌথসভা থেকে ২০ দলীয় জোটের পক্ষে নির্বাচন পরিচালনার জন্য সমন্বয়কারীর দায়িত্ব দেওয়া হয় জেলা বিএনপির সভাপতি অ্যাডভোকেট এস এম শফিকুল আলম মনাকে।

এছাড়া কেসিসি নির্বাচন পরিচালনার জন্য গঠিত নির্বাচন পরিচালনা কমিটি গঠন করা হয়। এতে মহানগর বিএনপির সিনিয়র সহ-সভাপতি সাহারুজ্জামান মোর্ত্তজাকে আহ্বায়ক, আমীর এজাজ খানকে সদস্য সচিব এবং নগর ও জেলা বিএনপির সিনিয়র নেতাদের সদস্য করে একটি কমিটি গঠন করা হয়। নির্বাচনী বিভিন্ন কার্যক্রম পরিচালনার জন্য আরো ১১টি উপ-কমিটি গঠনের প্রস্তাব করা হয়।

যৌথসভায় সভাপতিত্ব করেন বিএনপির জাতীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য ও খুলনা জেলা শাখার সভাপতি অ্যাডভোকেট এসএম শফিকুল আলম মনা। প্রধান অতিথি ছিলেন বিএনপির কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক ও খুলনা মহানগর সভাপতি এবং কেসিসি নির্বাচনে ধানের শীষ প্রতীকের প্রার্থী নজরুল ইসলাম মঞ্জু। 

বিশেষ অতিথি ছিলেন কেন্দ্রীয় সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক অনিন্দ্য ইসলাম অমিত, কেসিসির মেয়র মনিরুজ্জামান মনি এবং মহানগর বিএনপির সিনিয়র সহ-সভাপতি সাহারুজ্জামান মোর্ত্তজা। সভা পরিচালনা করেন জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক আমীর এজাজ খান।

বাংলাদেশ সময়: ১৮০১ ঘণ্টা, এপ্রিল ১৬, ২০১৮
এমআরএম/এএ

চমেক হাসপাতালে কয়েদির মৃত্যু
নিরপেক্ষ সরকার প্রশ্নে ঐক্যের আহ্বান ফখরুলের
আসিফা হত্যাকাণ্ডে লন্ডনে তোপের মুখে মোদী 
কারাফটক থেকে ফিরে গেলেন ফখরুলসহ ৩ নেতা
ঈশ্বরদীতে সড়ক দুর্ঘটনায় পা হারালেন ট্রলি চালক
খালেকের তথ্য গোপনের অভিযোগের শুনানি অনুষ্ঠিত
রংপুরে ছেলে হত্যার দায়ে বাবার যাবজ্জীবন
সাপাহারে ট্রলি থেকে পড়ে যুবকের মৃত্যু
৭ জেএমবি সদস্যের ৭ দিনের রিমান্ড চায় পুলিশ
ফারমার্স ব্যাংকের চিশতি ফের রিমান্ডে

Alexa