রাশিয়ার কাছে ৫-০ গোলে বিধ্বস্ত সৌদি

ওয়ার্ল্ডকাপ ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

ছবি: সংগৃহীত

জমকালো উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের পর প্রথম ম্যাচে সৌদি আরবকে ৫-০ গোলে উড়িয়ে দিল রাশিয়া। ‘এ’ গ্রুপের এ ম্যাচে এক কথায় এশিয়ান দলটিকে পাত্তাই দিল না পুতিনের দেশ। আর এ ম্যাচ জিতে বিশ্বকাপের অনন্য এক রেকর্ড ধরে রাখলো রাশিয়া। এর আগে ২০টি আসরে স্বাগতিক দেশ উদ্বোধনী ম্যাচে কখনো হারেনি।

ছবি: সংগৃহীতরাশিয়ার হয়ে জোড়া গোল করেন দেনিস চেরিশভ। এছাড়া দুর্দান্ত এ জয়ে একটি করে গোল করেন ইউরি গাজিনস্কিয়ি, আর্তেম জিউবা ও আলেক্সান্দর গোলোভিন।

ঐতিহাসিক লুঝনিকি স্টেডিয়ামে এদিন ম্যাচের শুরু থেকেই আক্রমণাত্মক খেলতে থাকে রাশিয়া। ফলও পেয়ে যায় দ্রুত। ১২ মিনিটে আলেক্সান্দর গোলোভিনের কর্ণার থেকে ইউরি গাজিনস্কিয়ি হেড গোল দিয়ে রাশিয়াকে প্রথমে এগিয়ে দেন।ছবি: সংগৃহীতমাঝে অবশ্য সৌদি ম্যাচে ফিরতে বেশ কয়েকটি ব্যর্থ চেষ্টা চালায়। তবে পেরে ওঠেনি। উল্টো রাশিয়ার বদলি খেলোয়াড় হিসেবে নামা দেনিস চেরিশভ পরে ৪৩ মিনিটে সৌদির বক্সে দুই ডিফেন্ডারকে বোকা বানিয়ে গোল করে বসেন। ২-০’তে এগিয়ে যায় স্বাগতিকরা। এই গোলটি করে তিনি একটি রেকর্ডও গড়েন। উদ্বোধনী ম্যাচে বদলি ফুটবলার হিসেবে তিনিই একমাত্র গোলদাতা। পরে জোড়া গোলে এগিয়ে থেকে বিরতিতে যায় রাশিয়া।

দ্বিতীয়ার্ধেও আক্রমণের ধার অব্যাহত রাখে রাশিয়া। ফলস্বরূপ ৭১ মিনিটে আর্তেম জিউবার হেডের গোল থেকে ৩-০’তে এগিয়ে যায় তারা। অপরদিকে খেই হারিয়ে ফেলা সৌদি নিজেরে আর ম্যাচে ফেরাতে পারেনি।ছবি: সংগৃহীতম্যাচের নির্ধারিত ৯০ মিনিটের পর অতিরিক্ত সময়ের প্রথম মিনিটে চেরিশভ নিজের দ্বিতীয় গোল উদযাপন করলে রাশিয়া এগিয়ে যায় ৪-০’তে। আর অতিরিক্ত সময়ের পঞ্চম ও শেষ মিনিটে আলেক্সান্দর গোলোভিন সৌদির কফিনে শেষ পেরেকটি ঠুকে দেন। ফলে ৫-০ গোলের বড় ব্যবধান নিয়েই মাঠ ছাড়ে রাশিয়া।

বাংলাদেশ সময়: ২৩০৮ ঘণ্টা, ১৪ জুন, ২০১৮
এমএমএস

শাহজালালে ৬ স্বর্ণেরবারসহ যাত্রী আটক
ছাগলনাইয়ায় মহিষের দখলে পশুরহাট
মৌলভীবাজারে সড়ক দুর্ঘটনায় মোটরসাইকেল আরোহী নিহত
সিলেটে চামড়া সংগ্রহের লক্ষ্যমাত্রা লক্ষাধিক পিস
শনিবার থেকে লঞ্চের স্পেশাল সার্ভিস
নাট্যকার সেলিম আল দীনের জন্ম
কোটার বিষয়ে অ্যাটর্নি জেনারেলের মত চেয়েছে সরকার
কেরালায় বন্যায় ৩২৪ জনের মৃত্যু, আশ্রয় শিবিরে সোয়া ২ লাখ
ডিমলায় জামায়াতের শীর্ষ ৪ নেতা আটক
স্বাচ্ছন্দ্যেই নৌপথে ঘরে ফিরছেন মানুষ